Breaking News

অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হলেন হাবিব ওয়াহিদ

হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী হাবিব ওয়াহিদ। ৩১ মার্চ মধ্যরাতে তাকে রাজধানীর

ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেদিনই চিকিৎসকরা তাকে হাসপাতালে ভর্তি

 

হওয়ার পরামর্শ দেন। ফুসফুসে সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। শনিবার (০৩ এপ্রিল) রাত ৯টার দিকে খোঁজ

নিয়ে জানা যায়, বর্তমানে তার শারিরীক অবস্থা আগের চেয়ে ভালো। হাসপাতালটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক

 

ডা. আশীষ চক্রবর্তী এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ফুসফুসের সমস্যা নিয়ে তিনি হাসপাতালে

এসেছিলেন। তখন তাকে স্পেশাল কেয়ার ইউনিটে নেওয়া হয়। একদিন পর তাকে কেবিনে হস্তান্তর করা

 

হয়। বর্তমানে তিনি আগের চেয়ে ভালো আছেন। শরীরে করোনার কিছু লক্ষণ থাকলেও তার করোনা

পরীক্ষার ফলাফল নেগেটিভ। ছেলের জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন হাবিব ওয়াহিদের বাবা ফেরদৌস

 

ওয়াহিদ।  হঠাৎ অসুস্থ মৌসুমী হঠাৎ করে অসুস্থ হয়ে পড়েছে চলচ্চিত্রের অভিনেত্রী মৌসুমী। শুধু তাই

নয়, ছেলে ফারদিন ও পুত্রবধূ আয়েশাও অসুস্থ। করোনা’ভাই’রাসের উপসর্গ আছে মনে করে তারা সবাই

 

এখন বাসায় আইসোলেশনে রয়েছেন। গত শুক্রবার (২ এপ্রিল) দুপুরে গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত

করেছেন ওমর সানী। তিনি জানান, আপাতত ঘরে তাদের চিকিৎসাসেবা দেওয়া হচ্ছে। শনিবার সবার

কো’ভিড–১৯ টেস্ট করানো হবে। ফেসবুকে দোয়া চেয়ে ওমর সানী লিখেছেন, ‘আমার স্ত্রী, ছেলে, নতুন

 

বউমাসহ বাসার অন্যান্য সদস্য এবং প্রিয় কিছু মানুষ অসুস্থ। আপনারা দোয়া করবেন, সবাই যেন সুস্থ

হয়ে ওঠে।’ তিনি আরও জানান, গতকাল থেকে মৌসুমীর শরীর ব্যথা, গলাব্যথা, হালকা জ্বর। ডাক্তারের

 

পরামর্শে চিকিৎসা চলছে। নিজের শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে ওমর সানী জানান, পরিবারের অন্যদের মতো

তিনি অতটা অসুস্থ নন। তবে হঠাৎ সবার শারীরিক অসুস্থতায় তিনি চিন্তিত। নিজেকে তার অসহায় মনে

 

। এর আগে ২৬ মার্চ অনুষ্ঠিত হয় চিত্রনায়িকা মৌসুমী ও নায়ক ওমর সানীর একমাত্র ছেলের বিয়ে।

জমকালো আয়োজনে আকদ অনুষ্ঠিত হয়। ৯ এপ্রিল পাঁচতারা হোটেলে বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠান

করার কথা থাকলেও করোনার কারণে আপাতত সেটি হচ্ছে না। ঈদের পর ছেলের বিবাহোত্তর সংবর্ধনা

দেবেন নায়িকা মৌসুমী।

 

 

Check Also

ভ্যাকসিনের ডাবল ডোজের পর করোনায় মৃ”ত্যু শূন্য

টিকার ডাবল ডোজ নিয়ে ক’রো’না সংক্র’ম’ণের হার দুই শতাংশের কম। আর মৃ”ত্যু নেই বললেই চলে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *