আমাদের সামনে নির্ঘাত অশনি সংকেত,” কাদের

করোনার থাবায় বদলে গেছে সব। শুধু বদলায়নি অ’নিয়’মের যাত্রা, শৃঙ্খলা ভঙ্গের অ’পরা’ধ।

তবে এ কারণে দিতে হবে চরম মাশুল। অপেক্ষা করছে নি’র্ঘা’ত অশনি সংকেত।’ করোনা

 

মহা’মা’রির চরম সংক’টে এমন আবেগঘন কথা বলেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক

এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। শনিবার (৯ এপ্রিল) তার ভেরিফাইড

 

ফেসবুকে পেজে দেয়া এক স্ট্যাটাসে তিনি এ কথা বলেন। ওবায়দুল কাদেরের সেই স্ট্যাটাসটি

হুবহু তুলে ধরা হলো: ভা’ই’রাস আবারো হিং’স্র ছো’বল মা’রছে আমাদের উদাসীন শহরে, চরম

 

উপেক্ষার গ্রামীণ জীবনে। চারদিকে ছড়িয়ে পড়েছে আ’ত’ঙ্ক। হাসপাতালের বেডের জন্য

সং’ক্র’মিত মানুষের স্বজনদের হাহাকার। খেটে খাওয়া মানুষের জীবিকার চাকা থেমে যাচ্ছে।

 

থেমে যাচ্ছে জীবনের চিরচেনা সুর। থেমে গেছে সেই পাখির কলরব। থেমে গেছে নদীর কলতান

। থমকে গেছে চন্দ্র-তারকা খচিত রাতগুলো। বদলে গেছে প্রকৃতির রঙ, বদলে গেছে জীবনের

 

রঙ, বদলে গেছে রাজনীতির রঙ, বদলে গেছে আমাদের আচার-আচরণের রঙ। শুধু বদলায়নি

অনিয়মের নিরন্তর যাত্রা। বদলায়নি শৃঙ্খলা ভঙ্গের অ’পরা’ধ। মানুষের শত্রু ভাই’রা’সকে মানুষই

 

জানাচ্ছে সাদর আমন্ত্রণ। অথচ এই প্রাণ’ঘা’তী ভা’ই’রাস কেড়ে নিয়েছে কত আপনজনের প্রাণ।

নিভিয়ে দিয়েছে কত চোখের বাতি। তছনছ করে দিয়েছে কত সাজানো সংসার। এই জনপদের

 

কত মানুষ আজ করোনার আ’ঘা’তে নিঃস্ব-রিক্ত। তবু কেউ মানে না স্বাস্থ্যবিধি। মাস্ক পরতে চায় না

বেশিরভাগ মানুষ। লকডাউনের কড়াকড়িতে ঢিলেঢালাভাব। পাত্তাই দিচ্ছে না কেউ ভ’য়’ঙ্কর

 

করোনাকে। কিন্তু করোনা কাউকে করে না করুণা। জানি না আর কতকাল গুনতে হবে আমাদের

নিজেদের অবহেলার, উপেক্ষার চরম মাশুল। আমাদের সচেতন হবার সময় কি এখনো আসেনি?

 

দেশের জনগণের নিশ্চিন্ত ঘুমের জন্য যিনি সারারাত জেগে থাকেন তার বারবার উচ্চারিত সতর্কবাণী

কি কানে পৌঁছায় না? নিজেদের সুরক্ষার স্বার্থে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার করোনা নিষেধাজ্ঞা আমরা

মানবো না? না মানলে আমাদের সামনে নি’র্ঘাত অশনি সংকেত।’

 

 

 

Check Also

নিঃস্ব হওয়ার পথে ভারত!

জাতিসংঘের শিশু তহবিল ইউনিসেফ বলছে, ভারতে প্রতি সেকেন্ডে চারজন করে নতুন করো’না রোগী শনা’ক্ত হচ্ছে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *