এটাই যেন জীবনের শেষ ঈদ শপিং না হয় : আইজিপি

জীবনের শেষ শপিং- মহা’মারী ক’রোনা চলাকালে এটাই জীবনের শেষ শপিং না হয়।

ঈদের নামে শপিং করা থেকে সতর্ক থাকুন। এমন মন্তব্য করেছেন পুলিশ মহাপরিদর্শক

(আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ। মঙ্গলবার (১৯ মে) দুপুরে রাজারবাগে পুলিশ লাইন্স

 

অডিটোরিয়ামে আসন্ন ঈদুল ফিতর ও ক’রোনা মহা’মা’রিতে আ’ইন-শৃ’ঙ্খলা বিষয়ে

ব্রি’ফিংয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন। আইজিপি বেনজীর আহমেদ বলেন, শপিংমল

ও শপিং সেন্টারগুলো খোলা হয়েছে। আমরা মার্কেট সমিতির সঙ্গে কথা বলেছি,

 

এসকল বিষয়ে সরকার নির্দেশ জারি করেছে, যাতে করে মার্কেটগুলোতে শপিং নি’রাপদ হয়।

আমরা শপিংয়ে একটি কথা উচ্চারণ করছি, ‘স্বাস্থ্যবিধি ও সুরক্ষাবিধি যেগুলো আছে,

সেগুলো অবশ্যই আমাদের মেনে চলতে হবে।

আইজিপি বলেন, এক্ষেত্রে মার্কেট সমিতি, সেলস পারসন, ক্রেতা, বিক্রেতা সবাইকে

মানতে হবে। শপিং করতে চাইলে স্বা’স্থ্য’বিধি মেনেই করতে হবে। ৫ দোকান দেখে ১০

দোকান দেখার পর এক দোকানে শপিং করার আমাদের একটা কালচার আছে।

 

এবার সেটাকে পরিহার করতে হবে। শপিংয়ের বেলায় আপনারা সতর্ক থাকবেন,

যেন এটাই আপনার জীবনের শেষ শপিং না হয়।

বেনজীর আহমেদ আরও বলেন, করোনায় মৃ”ত্যু হচ্ছে, কিন্তু এটা কোনো জুজুর

 

ভয় নয়। এটা কিন্তু রিয়েল ফ্যাক্ট। তাই যে স্বা’স্থ্যবিধির কথা বলা হয়েছে। সেটা

বিক্রেতা-ক্রেতা উভয়ই মেনে চলবেন। আমরা যদি এগুলো মেনে চলি, আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস

বৈশ্বিক এই দুর্যোগ থেকে জাতিকে দেশকে জনগণকে তুলনামূলকভাবে রক্ষা করতে পারবো।

 

মৃ”ত্যু’র মিছিলে আপনি শুধু একটি সংখ্যা কিন্তু পরিবারের কাছে পৃথিবী

সরকারি আদেশ অমান্য করে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন শহর থেকে গ্রামের

বাড়ি যাওয়ার প্রবণতা ক’রোনাভা’’ইরা’স সং’ক্র’মণের ঝুঁ’’কি বাড়াচ্ছে উল্লেখ করে

 

পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ বলেছেন, মনে রাখবেন,

বেঁচে থাকলে অনেক ঈদ করতে পারবেন, কিন্তু ঝুঁ’কি নিয়ে বাড়ি গিয়ে ঈদ করা

যেন শেষ ঈদ না হয়। আপনার কারণে শুধু আপনি নন, আপনার পরিবারের সদস্যরাও

 

মৃ”ত্যুঝুঁ’কিতে পড়তে পারেন। আজ মঙ্গলবার (১৯ মে) দুপুরে রাজারবাগ পুলিশ

অডিটোরিয়ামে গণমাধ্যমের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ কথা বলেন। আসন্ন

পবিত্র ঈদুল ফিতর ও করোনা’ভাই’রাস মহা’মারির প্রেক্ষাপটে আ’ই’ন-শৃ’ঙ্খলা’ বিষয়ে

এ মতবিনিময়ের আয়োজন করা হয়।

 

আইজিপি বলেন, গত এপ্রিল মাসে দেশে মাত্র ২৪ জেলা ক’রোনা সংক্র’মিত ছিল।

কিন্তু পরে নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুর থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে গমনাগমনের ফলে

সং’ক্র’ম’ণ সারাদেশে ছড়িয়ে পড়েছে। প্রতিদিনই ক’রোনা’ভাই’রাসে আ’ক্রা’ন্ত ও মৃ”ত্যুর সংখ্যা বাড়ছে।

 

‘ক’রোনা ভা’ই’রাসে আ’ক্রা’ন্ত হয়ে মৃ”ত্যুর মিছিলে আপনি শুধু একটি সংখ্যা,

কিন্তু পরিবারের কাছে আপনি গোটা পৃথিবী। সুতরাং যে যেখানে আছেন, দয়া করে

সেখানে অবস্থান করুন। যারা বিভিন্ন উপায়ে বাড়ি যাওয়ার চেষ্টা করছেন, তারা ফিরে আসুন।

পুলিশপ্রধান বলেন, বর্তমান ক’রোনাভা’ইরা’স পরিস্থিতিতে আ’ইন-শৃ’ঙ্খ’লা রক্ষাকারী

বাহিনী কিভাবে দায়িত্ব পালন করবে শুরুতে তা জানা ছিল না। পরে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের

আ’ইন-শৃ’ঙ্খলা’ রক্ষাকারী বাহিনীর কাছ থেকে অ’ভিজ্ঞতা ও মতামত নিয়ে এসওপি তৈরি

 

করা হয়। বর্তমানে সারাদেশে এই এসওপি অনুসরণ করে পুলিশ বাহিনী দায়িত্ব পালন করছে।

তিনি বলেন, আ’ইন-শৃ’ঙ্খ’লা রক্ষাকারী বাহিনীর নিরাপত্তাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে।

মাত্র দেড় মাসের মধ্যে ক’রোনা’ভাই’রাস শ’না’ক্তক’রণে ল্যাবরেটরি স্থাপন করা হয়।

ক’রোনা’ভাই’রাসের সং’ক্র’মণ রোধে সরকারি নির্দেশনানুসারে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি

মেনে চলারও অনুরোধ জানান আইজিপি।

 

Check Also

মুনিয়ার অতীতের সব জানালেন তার বোন নুসরাত তানিয়া

মুনিয়াদের গ্রামের বাড়ি কুমিল্লা শহরের মনোহরপুর উজির দিঘির দক্ষিণ পাড়ে। সেখানে মুনিয়াদের পৈত্রিক একতলা পাকা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *