ক’রোনা ভা’ইরাস মা’রবে ইলেকট্রনিক মাস্ক, বিস্তারিত আরও জানুন…

ক’রোনা প্রা’দুর্ভাবে বিশ্বে বাড়ছে মাস্কের চাহিদা। এমন পরিস্থিতিতে ইলেকট্রনিক মাস্ক তৈরি করেছেন

সেন্ট্রাল তুরস্কের আকসারি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুইজন ডাক্তার। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের তথ্যে জানা গেছে, এই

ইলেকট্রনিক মাস্ক রো’গ-জী’বাণুর পাশাপাশি ক’রোনা’ভাইরা’সের জী’বাণু ধ্বংস করতে পারবে। এ ছাড়াও এটি পরা

 

থাকলে করোনা আ’ক্রা’ন্ত রো’গীর শ্বা’সযন্ত্র, হাঁচি-কাশির মাধ্যমে জী’বাণু ছড়াতে পারবে না।

চলমান প্রজেক্টের অংশ হিসেবে এই মা’স্ক তৈরি করেছেন ওই দুই ডাক্তার।

এ বিষয়ে তাদের একজন ডাক্তার তারিক ইলমাজ বলেন, ‘বহনযোগ্য ও নিজে নিজেই জী’বাণুমু’ক্ত

 

হতে পারে এমন মাস্ক তৈরি করার চেষ্টা করেছি আমরা। এরপর আমরা জী’বাণু ও ভাই’রাস ধ্বংস

করতে পারে এমন মা’স্ক তৈরির পরিকল্পনা নিয়ে আগাই। ১৯০০ সাল থেকে গবেষণায় দেখা গেছে,

আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মি ভা’ই’রাস মা’রতে পারে। মাস্কে এই আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মি যুক্ত ও কার্যকর করাটা

 

ছিল চ্যালেঞ্জিং। বেশ সময়ও লেগেছে। অবশেষে মাস্কে আমরা এই প্রযুক্তি যুক্ত করতে সক্ষম হয়েছি।

এটার পাশাপাশি ইলেকট্রিক্যাল সিলভার বেসও তৈরি করেছি। এর মধ্য দিয়ে আমরা জী’বাণু ও

ভাই’রাস ধ্বং’স’কারী মা’স্ক তৈরি করতে স’ক্ষম হয়েছি।’তিনি আরো বলেন, ‘মাস্কের মধ্যে আমরা

একটা ফিল্টার তৈরি করেছি যেটা আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মি দিয়ে জীবাণু ও ভাইরাস ধ্বংস করে

পরিস্কার রাখবে। ফিল্টারে কোনো ভা’ই’রাস ধরা পড়লে সেটাকে ‘ধ্বং’স করবে। ইতিমধ্যে আমরা

এটার মেধাস্বত্ত্ব পাওয়ার জন্য আবেদনও করেছি। সেটা পেয়ে গেলেই আমরা এটা উন্মু’ক্ত করব।’

 

ডাক্তার তারিক বলেন, ‘এটা মূলত পাওয়ার ব্যাংক থেকে শক্তি নিবে। আর সেটার মাধ্যমে

একটানা ১২ ঘণ্টা চলবে।’ ফিল্টারে কোনো ভা’ইরা’স ধরা পড়লে সেটাকে ধ্বংস করবে। ইতিমধ্যে

আমরা এটার মেধাস্বত্ত্ব পাওয়ার জন্য আবেদনও করেছি। সেটা পেয়ে গেলেই আমরা এটা উন্মুক্ত করব।’

Check Also

নিঃস্ব হওয়ার পথে ভারত!

জাতিসংঘের শিশু তহবিল ইউনিসেফ বলছে, ভারতে প্রতি সেকেন্ডে চারজন করে নতুন করো’না রোগী শনা’ক্ত হচ্ছে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *