গাড়ি বেচে ক’রো’না রোগীদের অক্সিজেন দিচ্ছেন তিনি

সত্যিই এক বিরল ঘটনা। নিজের দামি গাড়ি বেচে মানুষের মধ্যে বিনামূল্যে অক্সিজেন সরবরাহের কাজে এগিয়ে

এলেন ভারতের মুম্বাইয়ের এক যুবক। ক’রো’নাভাইরাস পরিস্থিতিতে এভাবে মানুষের পাশে দাঁড়ানোয় রীতিমতো

 

এলাকায় সাড়া জাগিয়েছে। এভাবে সমাজ সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করে এখন সকলের নয়নের মণি

শাহনওয়াজ শেখ। নিজের এক সংস্থা ইউনিটি অ্যান্ড ডিগনিটি ফাউন্ডেশন শুরু করেছিলেন শাহনওয়াজ।

 

নিজের দামি গাড়ি ফোর্ড এন্ডিওভার বেচে দিয়ে যে টাকা পেয়েছিলেন, তা দিয়েই অক্সিজেন সিলিন্ডার কিনতে শুরু

করেন তিনি। গত বছর ক’রো’না পরিস্থিতি যখন মারাত্মক আকার নিয়েছিল, তখন থেকেই এই উদ্যোগ নিতে শুরু

 

করেন তিনি। করোনা পরিস্থিতির কথা বলতে গিয়ে এনডিটিভিকে শাহনওয়াজ বলেছেন, গত বছর থেকেই এই কাজ

শুরু করেছিলাম। আমরা ৫ হাজার থেকে ৬ হাজার অক্সিজেন সিলিন্ডারের জোগান দিয়েছি। এই বছর মারাত্মক

অক্সিজেনের ঘাটতি দেখা দিয়েছে। আগে যেখানে আমরা ৫০টি কল পেতাম, এখন সেখানে ৫০০ থেকে ৬০০টি

 

কল পাই। নিজের অভিজ্ঞতার কথা বলতে গিয়ে শাহনওয়াজ বলেন,‘ যখন করোনায় আমার বন্ধুর মৃ’ত্যু হয়, তখন

থেকেই ঠিক করেছিলাম সাধারণ মানুষের কাছে বিনামূল্যে অক্সিজেন পৌঁছে দেব, যাতে মানুষকে বিনা অক্সিজেনে

 

মরতে না হয়। যখন দেখলাম, সঠিক সময়ে অক্সিজেনের জোগান দিলে মানুষের ‘মৃত্যু হচ্ছে না, তখন ঠিক করি

আমার এসইউভি গাড়িটা বেচে দেব। তার থেকে যে টাকা পাব, তা দিয়েই করোনা রোগীদের জন্য ওষুধ ও

 

অক্সিজেন জোগানের ব্যবস্থা করব। একইসঙ্গে শাহনওয়াজ বলেন, আগে টাকার অভাবে এই কাজ ঠিকভাবে

করতে পারছিলাম না। পরে চিন্তা করলাম, এসইউভি গাড়ি তো পরেও কিনতে পারব। আগে মানুষের পাশে দাঁড়ানো

 

দরকার। ইতিমধ্যে শাহনওয়াজের এই উদ্যোগ সোশ্যাল মিডিয়ায় সাড়া ফেলে দিয়েছে। আইএফএস অফিসার সুধা

রামেনের মতে, শাহনওয়াজ ও তার দলের লোকেরাই এখন সত্যিকারের হিরো। অপর আইএফএস অফিসার

সীতাংশু পাণ্ডে জানান, অনেক অনেক ধন্যবাদ শাহনওয়াজকে করোনা রোগীদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য।

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

 

 

Check Also

নিঃস্ব হওয়ার পথে ভারত!

জাতিসংঘের শিশু তহবিল ইউনিসেফ বলছে, ভারতে প্রতি সেকেন্ডে চারজন করে নতুন করো’না রোগী শনা’ক্ত হচ্ছে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *