Breaking News

বৌমার স্ত*ন বেশ ভালো, নাতির ভালো খাওয়া দাওয়া হচ্ছে” বলায় বাড়ি’ছাড়া শ্বশুর

বাড়িতে নি’জের মতো করে স’ন্তানকে স্ত’*ন’দু’গ্ধ পান করা’চ্ছিলেন মা। জীবনে প্রথমবার এবং নতুন মা

হওয়ার অনু’ভূতিতেআচ্ছন্ন ছিলেন তিনি। সেই স’ঙ্গে মা হওয়ার কারণে শা’রী’রি’ক অ’বস্থার বদলের

 

বিষয়টিও মাথায় ঘুরছিল। এমন সময়ে এল তাঁর শরীর সংক্রান্ত প্রশংসা। যা খুশি নয়, নিয়ে এল বিস্তর

বে’দনা। নিজের নাতিকে মা’তৃদু’গ্ধ পান করাতে দেখে’ছিলেনএক বৃদ্ধ। যিনি সম্পর্কে ওই ম’হিলার শ্বশুর।

 

সেই সময়ে সরা’সরি নিজের ছেলের বৌকে তিনি জানিয়ে দেন যে তাঁর(পুত্রবধূর) স্ত’*ন যুগল খুবই সু’ন্দর।

অমন বড় স্ত*’ন সচরাচর দেখা যায় না। যা নিয়েই শুরু হল বিপত্তি। বিবাদ এতটাই দূরে গড়াল যে স’স্ত্রীক

 

বাড়ি ছাড়তে হল ওই বৃদ্ধকে। এই বিষয়ে ওই ম’হিলার স্বামী বলেছেন, “আমার স্ত্রী আমাদের ছেলেকে

নিজের দুধ খাও’য়াচ্ছিল। সেই সময়ে আমার বাবা আমার স্ত্রীর স্ত*’ন দেখতে পায়। যদিও স্ত’*নবৃ’ন্ত দেখতে

 

পায়নি। সেই সময়ে আমার বাবা জানায় যে বৌ’মার স্ত’*ন বেশ ভালো, নাতির ভালো খাওয়া দাওয়া হচ্ছে।

আমার স্ত্রীর বিষয়টি ভালো লাগেনি। খুব দুঃখিত হয়েছিল। এবং খুব কেঁ’দেছিল।” এরপরে বিষয়টি নিজের

 

মাকে জানান নতুন বাবা তথা ওই ম’হিলা’র স্বামী। নতুন ঠাকুমা সমগ্র বিষয়টি শুনে খুবই ক্রুব্ধ

হয়েছিলেন। বি’ষয়টি নিজের বাবাকেও জানান তিনি। তাঁর কথায়, “আমি বাবাকে বল’ছিলাম যে এই

 

ধরণের কথা বা মন্তব্য যেন আর উনি না করেন। অন্যথায় এই বাড়িতে তাঁর থাকা হবে না বলেও জানিয়ে

দেওয়া হয়। আমার মাও একই কথা বলে’ছিলেন।” এরপরে আচ’মকা নিজের পু’ত্রবধূর কাছে ওই মন্তব্যের

 

জন্য ক্ষমা চেয়ে নেন বৃদ্ধ ব্যক্তি। ওই ধরণের মন্তব্য তিনি আর করবেন না বলেও অ’ঙ্গি’কার করেন তিনি

। এতেই চটে গিয়ে শ্ব’শুরকে তিরস্কার করেন তাঁর পুত্রবধূ। তিনি তাঁর শ্বশুরকে ‘বিকৃত’ এবং ‘বি’রক্তিকর’

 

বলেন। এরপরেই নিজের স্ত্রীকে নিয়ে ওই বাড়ি ছেড়ে চলে যান ওই বৃ’দ্ধ ব্যক্তি। এরপরেই সমগ্র ঘটনা

মি’ডিয়ায় শেয়ার করেছেন বাড়ি ছাড়া বৃদ্ধ দম্পতির স’ন্তান। ওই পোস্টে নি’জের বাবাকে গাধার সঙ্গে

 

তুলনা করেছেন নতুন বাবা হওয়া ওই ব্যক্তি। তিনি বলেছেন, “আমার বাবা একটা গা’ধার মতো কাজ

করেছে। একবার যখন ভুল করে ফে’লেছিল সেটা নিয়ে আবার ক্ষমা চাইতে যাওয়ার কোনও মানে ছিল

না। ফের প্র’সঙ্গ উত্থাপন করে বিপদ বাড়িয়ে দিল। এদের গাধা ছাড়া আর কী বলা যেতে পারে!”

 

 

Check Also

এক অন্ধ হরিণ ও ১০ বছরের বালকের হৃদয়বিদারক গল্প

যদি ভাবেন যে এটা ১০ বছর বয়সী এক ছে’লের গল্প, যে কি না একটা অন্ধ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *