মাস্ক কেনার অর্থ নেই, মুখে পাখির বাসা বাঁধলেন বৃদ্ধ

ভারতের তেলঙ্গনার এক পশুপালক সরকারি অফিসে চলে গেলেন মুখে পাখির বাসা বেঁধে। তাঁর কাছে মাস্ক কেনার

অর্থ ছিল না বলে এই কাণ্ড তিনি করেছেন। ভারতজুড়ে করোনার সংক্র’মণ বাড়ায় নিয়মবিধি কঠোর হয়েছে প্রায়

 

সব রাজ্যেই। তেলঙ্গনাতেই মাস্ক না পরে রাস্তায় বেরলে ১০০০ রুপি জরিমানা। তাই তিনি মুখে পাখির বাসা বেঁধে

বের হয়। পাখির বাসা পরিহিত ছবি এই মুহূর্তে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। সেই সঙ্গে দাবি ওঠেছে, যাঁরা মাস্ক

 

কিনতে অসমর্থ, তাঁদের জন্য সরকারি অফিসে মাস্কের ব্যবস্থা রাখা হোক। ভারতের স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে

বলা হয়, মেহবুবনগর জেলার চিন্নামুনুগাল এলাকার বাসিন্দা মেকালা কুরমাইয়া অতি দরিদ্র এক পশুপালক। মাস্ক

 

কেনার অর্থ নেই তাঁর।কিন্তু মাস্ক ছাড়া সরকারি অফিসে ঢুকতে দেওয়া হবে না তা জানেন মেকালা। তাই নিজেই

বানালেন মাস্ক। ঠিক বানানো নয়, পাখির বাসা মুখে লাগিয়ে যান তিনি। জোর করে কোভিড আ’ক্রা’ন্তদের রাস্তায়

 

বের করে দিল হাসপাতাল একবিংশ শতকের পৃথিবীর পক্ষে লজ্জার দৃশ্য। রাস্তায় গড়াগড়ি খাচ্ছে মানুষ! এমন

লজ্জাজনক এবং মর্মান্তিক এই দৃশ্য দেখা গেছে ভারতের কর্নাটকের বিদরে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জি নিউজের

 

খবরে বলা হয়, করোনাভা’ই’রাসের চিকিৎসার জন্য আর কোনো বেড নেই হাসপাতালে। তাই বিদর ইনস্টিটিউট

মেডিকেল সাইন্স হাসপাতালে একরকম জোর করেই হাসপাতাল চত্বর থেকে রাস্তায় বের করে দিয়েছে রোগীদের।

 

ফলে হাসপাতালের বাইরে ফুটপাতের ওপরেই শুয়ে রয়েছেন অসহায় অসুস্থ মানুষগুলো। যদিও সোমবারই (১৯

এপ্রিল) কো’ভিড আ’ক্রা’ন্ত মানুষগুলোর পরিবার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন জানিয়েছিল, বেড না

 

পেলেও তাদের রোগীদের যেন মেঝেয় রেখে চিকিৎসা করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। কিন্তু সেই আবেদনে সাড়া

না দিয়ে হাসপাতাল চত্বর থেকে রাস্তায় বের করে দিয়েছে রোগীদের।

 

 

Check Also

মুনিয়ার অতীতের সব জানালেন তার বোন নুসরাত তানিয়া

মুনিয়াদের গ্রামের বাড়ি কুমিল্লা শহরের মনোহরপুর উজির দিঘির দক্ষিণ পাড়ে। সেখানে মুনিয়াদের পৈত্রিক একতলা পাকা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *