মুনিয়ার মৃ,ত্যুর কারণ জানতে সময় লাগবে দুই মাস

রাজধানীতে কলেজছাত্রী মোসারাত জাহান মুনিয়া হ’ত্যা মাম’লার ফরেনসিক রিপোর্ট পেতে আরো দেড় থেকে দুই

মাস সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। সেই রিপোর্ট হাতে পেলেই উন্মোচিত হবে মুনিয়ার মৃ’ত্যুর প্রকৃত

 

রহস্য। গত মঙ্গলবার ( ২৭ এপ্রিল ) গু’লশানের একটি ফ্ল্যাট থেকে কলেজ শিক্ষার্থী মোসারাত জাহান মুনিয়ার

মর’দে’হ উ’দ্ধার করে পুলিশ। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ময়নাতদ’ন্ত শেষে কুমিল্লায় মর’দে’হ

 

দা’ফন করা হয়। ময়নাতদ’ন্ত করার পর কে’টে গেছে ৫ দিন। রিপোর্ট পেতে কেন এই বিলম্ব? প্রশ্নের জবাবে

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মুনিয়াকে বি’ষ প্রয়োগ কিংবা ধxxণ করা হয়েছিল কিনা এমন বেশ কয়েকটি বি’ষয়

 

পরীক্ষার জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে সুপারিশ করা হয়েছে। যার জন্য প্রয়োজন ভিসেরা, ডিএনএ ও মাইক্রো

বায়োলজিক্যাল পরীক্ষা, যা সময় সা’পেক্ষ। এ কারণেই ময়নাতদ’ন্ত রিপোর্ট পেতে দেড় থেকে দুই মাস

 

অ’পেক্ষা করতে হবে। শ’হীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান

অধ্যাপক সেলিম রেজা বলেন, প্রাসঙ্গিক ভিসেরা পাঠিয়েছি। সেগু’লোর রিপোর্ট আসতে এক থেকে দেড়

 

মাস সময় লাগবে। এ ছাড়া ডিএনএ প্রোফাইলিংয়ের ব্যাপারটাও ১২ স’প্ত াহের মতো লাগবে। মাইক্রো

বায়োলজিক্যালসহ সব মিলিয়ে একটু সময় লাগবে। অধ্যাপক সেলিম রেজা বলেন, এ রিপোর্ট পাওয়ার

 

পর মৃ’ত্যুর আসল কারণ জানা যাব’ে। গত ২৬ এপ্রিল রাতে গু’লশানের একটি ফ্ল্যাট থেকে উচ্চ মাধ্যমিক

দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মুনিয়ার মর’দে’হ উ’দ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় মুনিয়ার বড় বোন বাদী হয়ে

 

আ’ত্মহ’ত্যার প্ররোচনার অ’ভিযোগে গু’লশান থা’নায় মাম’লা করেন। আগামী ৩০ মে এ মাম’লার তদ’ন্ত

প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য রয়েছে। প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য রয়েছে।

 

 

Check Also

নিঃস্ব হওয়ার পথে ভারত!

জাতিসংঘের শিশু তহবিল ইউনিসেফ বলছে, ভারতে প্রতি সেকেন্ডে চারজন করে নতুন করো’না রোগী শনা’ক্ত হচ্ছে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *