1. tahsanrakibkhan2@gmail.com : admin :
  2. dailymoon24@gmail.com : Fazlay Rabby : Fazlay Rabby
মোদির প্রিয় খাবার! - Daily Moon
শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:২৫ পূর্বাহ্ন

মোদির প্রিয় খাবার!

ফজলে রাব্বি
  • Update Time : শুক্রবার, ২৬ মার্চ, ২০২১
  • ১৬ View

মুজিব শতবর্ষে চিরঞ্জীব নেতা জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি ভালোবাসায় ও স্বাধীন

বাংলাদেশের সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠানে যোগ দিতে দুই দিনের সফরে ঢাকায় পৌঁছেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী

 

নরেন্দ্র মোদি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি একজন স্বা’স্থ্য সচে’তন মানুষ। খাবার নিয়ে বেশ কিছুটা নিয়ম

পা’লন করেন তিনি। চলুন একনজরে দেখা যাক মোদির প্রিয় খাবারের তালিকা। মোদি মূলত সবচেয়ে

বেশি ভালোবাসেন খিচুড়ি খেতে। তার পছন্দের খাবারের তালিকায় সবচেয়ে ওপরে রয়েছে খিচুড়ি।

 

গুজরাতি খিচুড়ির একটি বিশেষ ঘরানা রয়েছে। সেই ঘরানা খাবারের ক্ষেত্রে পছন্দ করেন মোদি। সুযোগ

পেলেই মোদি স্টাফ ক্যান্টিন থেকে খাবার খেতে ভালোবাসেন। তবে তার অর্ডার সবসময়ই হালকা

 

নিরামিষ খাবার থাকে। ভেজ-থালি তার প্রিয় খাবারের ডিশ। শাক, ডাল ও একটি তরকারি সেই থালিতে

অবশ্যই থাকতে হবে। ফল জাতীয় খাবার সুযোগ পেলেই সংসদের স্টাফ ক্যান্টিন থেকে ফ্রুট সালাদ

 

আনিয়ে খেয়ে নেন মোদি। ঘনিষ্ঠদের দা’বি ফল খেতে প্রধানমন্ত্রী পছন্দ করেন। এতে ডায়েট ব্যালেন্স

বহাল থাকে বলে তার বিশ্বা’স। নবরাত্রির সময় উপবাস পা’লন করেন মোদি। নবরাত্রির সময় টানা ৯ দিন

 

উপবাস করেন মোদি। সেই সময় লেবুর জল ও পছন্দের শরবত খেতে তিনি পছন্দ করেন। তখন

সন্ধ্যাবেলা শুধু এক কাপ চা খেয়ে নেন মোদি। আর চার পাঁচজন গুজরাতির মতো ধোকলা খেতে খুবই

 

পছন্দ করেন মোদি। তার স’ঙ্গে একটু টকজাতীয় রায়তা হলে তো কথাই নেই। এ ছাড়া শ্রীখণ্ড বেসনের

মিষ্টি বা শ্রীখণ্ড খেতে খুব ভালোবাসেন মোদি। ওখড়া খাড়ি নামের গুজরাতের এক বিশেষ মিষ্টি পদও

 

প্রধানমন্ত্রীর খুব প্রিয়। শুক্রবার (২৬ মা’র্চ) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে শাহজালাল আন্তর্জাতিক

বিমানবন্দরে অবতরণ করে নরেন্দ্র মোদিকে বহনকারী বিমান। এর আগে মোদি বাংলাদেশ সফর নিয়ে

 

বলেন, মোদি বলেন, ‘করো’না ম’হামা’রির এই সময়ে এমন এক প্রতিবেশী ব’ন্ধু দেশে সফর ক’রতে পেরে

আমি আনন্দিত, যার স’ঙ্গে ভারতের গ’ভীর সাংস্কৃতিক, ভাষাগত এবং জনগণের স’ঙ্গে জনগণের স’স্পর্ক

 

বিদ্যমান।’ সাতক্ষীরা ও গোপালগঞ্জে মন্দির পরিদ’র্শনের কথা উল্লেখ করে মোদি বলেন, ‘সাতক্ষীরায়

পৌরাণিক যশোরেশ্বরী মন্দিরে মা-কালীর প্রতিও পূজা দিতে চাই আমি। বিশেষ করে ওড়াকান্দিতে মতুয়া

 

সম্প্রদা’য়ের স’ঙ্গে ও মিথস্ক্রিয়া ক’রতে চাই আমি, যেখানে শ্রী হরিচরণ ঠাকুর পবিত্র বাণী প্র’চার

করেছিলেন।’ ভারতের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘গত ডিসেম্বরে ভার্চুয়াল বৈঠকের প্রেক্ষাপটে প্রধানমন্ত্রী শেখ

হাসিনার স’ঙ্গে আমা’র বিশেষ আলাপ-আলোচনা হবে। পাশাপাশি রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও অন্য

 

ব্য’ক্তিদের স’ঙ্গে আমা’র সাক্ষাৎ হবে।’ ভারতের প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বাপ্নিক

নেতৃত্বে তাৎপর্যপূর্ণ অর্থনৈতিক ও উন্নয়নমূলক অগ্রগতির জন্য বাংলাদেশকে সাধুবাদ জা’নানোয় আমা’র

 

সফর সীমাবদ্ধ থাকবে না; এর স’ঙ্গে এই অর্জনে পাশে থাকার প্র’তিশ্রুতিও থাকবে।’ এ সময় ভারতের

প্রধানমন্ত্রী উল্লেখ করে বলেন, করো’না ভা’ইরাস মো’কাবিলায় বাংলাদেশকে সহযোগিতা ও সংহতির

 

বার্তাও সফরে দেওয়া হবে। উল্লেখ্য, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং বঙ্গব’ন্ধুর জ’ন্মশতবার্ষিকীর পাশাপাশি

বাংলাদেশ-ভারত ব’ন্ধুত্বের ৫০ বছর পূর্তিতে মোদির এ সফর বিশেষ তাৎপর্য বহন করছে।

 

 

 

 

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021  dailymoon24.com
Theme Customized BY IT Rony