রাতে ক’রোনার উ’পস’র্গ নিয়ে স্ত্রী ও ভোরে স্বামীর ই’ন্তে’কা’ল !

ক’রোনার উ’পসর্গ নিয়ে স্বামী স্ত্রীর ই’ন্তেকা’ল- চাঁদপুর শহরে কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে

ক’রোনা’ভা’ইরাসের উ’প’সর্গ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মৃ’ত্যু হয়েছে।

সোমবার (১৮ মে) রাত ৮টার দিকে শহরের চিত্রলেখা এলাকার নিজ বাড়িতে স্ত্রী

 

রাবেয়া বেগম (৭২) ও মঙ্গলবার (১৯ মে) ভোর ৫টায় স্বামী মুজিবুর রহমান

পাটোয়ারী মা’রা গেছেন। তাদের এক ছেলে ও নাতি ক’রোনায় আ’ক্রা’ন্ত।

গত রোববার (১৭) সকালে করোনা পরীক্ষার জন্য বৃ’দ্ধ স্বামী-স্ত্রীর নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল।

 

তবে তাদের রিপোর্ট এখনও আসেনি। এ কারণে চাঁদপুর শহরতলির আশিকাটি গ্রামের

বাড়িতে বিশেষ ব্যবস্থায় রাবেয়া বেগমকে সোমবার রাতে আর মুজিবুর রহমান

পাটোয়ারীকে মঙ্গলবার সকালে দা’ফ’ন করা হয়েছে।

 

তাদের ছেলে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সহকারী পরিচালক

(পিআর) আনোয়ার হাবিব কাজল বলেন, আমার মা সোমবার রাতে শহরের

চিত্রলেখা এলাকার বাসায় মা’রা যান। এরপর রাত সাড়ে ৩টায় আশিকাটি ইউনিয়নের

 

হোসেনপুরের গ্রামের বাড়িতে দা’ফ’ন করে শহরের বাসায় আসি। এর দেড় ঘণ্টা পর

মঙ্গলবার ভোর ৫টার দিকে মা’রা গেলেন বাবাও। আমার বাবা মুজিবুর রহমান

পাটোয়ারী গণপূর্ত বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ছিলেন।

 

চাঁদপুর সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সাজেদা পলিন

জানান, মা’রা যাওয়া দুইজনের ছেলে এবং নাতির শরীরে ইতোমধ্যে করোনা

শ’নাক্ত হয়েছে। যেহেতু তাদের পরিবারের দুইজন ক’রোনা আ’ক্রা’ন্ত হয়েছেন

 

এবং তাদেরও কিছু উপসর্গ ছিল তাই রোববার স্বামী-স্ত্রীর নমুনা সংগ্রহ করা হয়।

তাদের রিপোর্ট এখনও আসেনি। তিনি বলেন, মা’রা যাওয়া স্বামী-স্ত্রীকে স্বাস্থ্য

মন্ত্রণালয় নির্দেশিত নিয়ম অনুযায়ী দা’ফ’ন করা হয়েছে। তাদের দা’ফন কাজে

সার্বিক সহযোগিতা করেছে পুলিশ ও স্বাস্থ্য বিভাগ।

 

৫০০ জনকে তবারক বিতরণের পর জানা গেল তিনি ক’রোনা প’জিটিভ

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলায় এক ব্যক্তি প্রায় সাড়ে ৫০০ মানুষকে

মিলাদের তবারক বিতরণের পর জানতে পারেন তিনি ক’রোনা প’জিটিভ।

 

এর ফলে কমপক্ষে ১৫০ পরিবারের মাঝে আ’ত’ঙ্ক আর চরম অনিশ্চয়তা

দেখা দিয়েছে। গত রোববার রাতে উপজেলার ওড়াকান্দি ইউনিয়নের খাগড়াবাড়িয়া

গ্রামের ওই ব্যক্তির ক’রোনা রি’পোর্ট প’জি’টিভ বলে জানা গেছে।

এর আগে, শনিবার কাশিয়ানী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নমুনা পরীক্ষা করতে

দিয়ে পরের দিন মৃ’ত ভাইয়ের মিলাদ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন তিনি।

এ সময় ওই ব্যক্তি দেড়শ বাড়িতে গিয়ে প্রায় সাড়ে ৫০০ জনকে তবারক বিতরণ করেন।

 

এদিন রাতেই জানা যায় তিনি ক’রোনা প’জিটিভ। এ ঘটনায় সোমবার খাগবাড়িয়া গ্রামের ওই

পরিবারগুলোকে ‘ল’ক’ডাউন’ করার নির্দেশ দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)

সাব্বির আহমেদ। রামদিয়া পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক খোন্দকার মো. আমিনুর রহমান জানান,

 

উপজেলার খাগড়াবাড়িয়া গ্রামের ওই ব্যক্তি গত শনিবার ক’রোনা পরীক্ষার জন্য কাশিয়ানী

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নমুনা দিয়ে আসেন। পরের দিন রোববার তিনি প্রশাসনকে না

জানিয়ে মৃ’ত ভাইয়ের মিলাদ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন।

মিলাদের প্রায় সাড়ে ৫০০ প্যাকেট তবারক দেড়শ বাড়িতে নিজ হাতে বিতরণ করেন।

ওইদিন রাতে কাশিয়ানী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার-পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. কাইয়ূম

তালুকদার তার শরীরে ক’রোনা প’জি’টিভ হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

 

ইউএনও বলেন, গত পাঁচদিন আগে ক’রোনায় আ’ক্রা’ন্ত ব্যক্তির ভাই ঢাকায় মা’রা যান।

তাকে খাগড়াবাড়িয়া গ্রামের বাড়িতে এনে দা’ফ’ন করা হয় ।

তিনি আরও বলেন, ‘এলাকাবাসীর নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে আমরা দেড়শ পরিবারকে

 

অ’বরুদ্ধ করেছি। পাশাপাশি এলাকার দুইটি মসজিদের মাইকে বিষয়টি ঘোষণা করেছি।

এলাকার যে সকল মুসল্লি নামাজ পড়তে মসজিদে আসেন, তাদের আপাতত বাড়িতে

নামাজ আদায় ও বাড়িতে অবস্থান করার জন্য অনুরোধ করেছি।’

 

Check Also

উইঘু হ’ত্যাকা’ণ্ড: চীনের পক্ষে নরম সুর নিউজিল্যান্ডের

চীনের জিনজিয়াং প্রদেশের উইঘুরদের ওপর যে নি’র্যা’তন চালানো হচ্ছে বলে আন্তর্জাতিক মহলে দাবি করা হচ্ছে, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *