সারাদিন মোবাইল টিপেন, চোখ ভালো রাখতে যা করবেন

চোখ ভালো রাখতে- বাড়িতে বসে কাজ করছেন অনেকেই।

সবসময় থাকতে হচ্ছে ল্যাপটপে বা মোবাইল ফোনে।

দীর্ঘসময় মোবাইল, ল্যাপটপ দেখতে দেখতে চোখের দৃষ্টি ঝাপসা হয়ে যাচ্ছে।

 

ভালো করে দেখতেই পাচ্ছেন না!

অনেকের চোখেই জ্বালা, ব্যথা চলে এসেছে।

যেন ধুলোবালি ঢুকেছে চোখে। চোখ ফুলে লাল। পানিও গড়াচ্ছে।

 

সবসময় স্ক্রিনে চোখ রাখার কারণেই এমন হচ্ছে,

বলছেন চিকিৎসকরা। যার ক্ষতিকর রশ্মি চোখে নানা সমস্যার সৃষ্টি করছে।

পানি শুকিয়ে যাচ্ছে চোখের।

 

এই সমস্যা থেকে ভালো থাকতে জেনে নিন কয়েকটি পরামর্শ-

১. কাজের ফাঁকে ছুটি নিন – প্রতি ১৫-২০ মিনিট অন্তর স্ক্রিন থেকে বিরতি নিন।

কয়েক সেকেন্ড চোখ বন্ধ করে রাখুন। আপনার চোখের চারপাশের

 

পেশীগুলো ম্যাসাজ করুন। দুই ঘন্টার মধ্যে চোখে পানির ঝাপটা দিন।

কিন্তু কখনোই হাত দিয়ে চোখ ঘষবেন না। চোখ শুকনো লাগলে

চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে আই ড্রপ ব্যবহার করতে পারেন।

 

২. নির্দিষ্ট সময় অনলাইন থাকুন –

চেষ্টা করুন হাতের কিছু কাজ শিখতে।

তাহলে কম সময় অনলাইনে থাকবেন। বাকিটা সময় হাতের কাজ

তৈরিতে কাটবে। আপনার চোখ কম ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

 

৩. পরিবারের সঙ্গে সময় কাটান

পরিবারের সঙ্গে সময় কাটানো মানেই মোবাইল বা

ল্যাপটপে কম সময় খরচ করা। তাই অবসরে পরিবারের সঙ্গে আড্ডা দিন। চোখ থাকবে সতেজ।

 

৪. পুষ্টিকর খাবার খান –

বাদাম, আখরোট, মাছ এবং সাইট্রাস ফল ডায়েটে রাখুন।

এগুলো পুষ্টি বাড়ায়। চোখ ভালো রাখে। কিছু খাবার আপনার চোখের জন্য ভাল।

ওবেসিটি, টাইপ ২ ডায়াবেটিস কমায়। মাছের মধ্যে থাকা মেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিড অন্ধত্ব দূর করে।

 

৫. আলোর নিচে বসে কাজ করুন –

অন্ধকারে বসে মোবাইল বা ল্যাপটপ দেখবেন না।

এতে চোখ বেশি করে খারাপ হবে। উজ্জ্বল আলোর নীচে বসে কাজ করুন

বা অনলাইনে থাকুন। সমস্যা কম হবে।

 

ইন্টারনেট ব্যবহারে এগিয়ে গ্রামের মানুষ

ভারতে শহর থেকে গ্রামের মানুষ ইন্টারনেট ও স্মার্টফোন বেশি ব্যবহার করেন।

শহরের থেকে গ্রামীণ এলাকায় ১০ শতাংশ বেশি ইন্টারনেট ব্যবহার হয়।

 

শহরে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা যেখানে ২০.৫ কোটি,

সেখানে গ্রামীণ এলাকার ২২.৭ কোটি বলে জানা গেছে। খবর এনডিটিভি

এক সমীক্ষায় বলা হয়েছে এই পরিবর্তন এসেছে স্মার্টফোন এবং

 

হাই-স্পিড ডেটার কারণে। চলতি বছরের জানুয়ারিতে প্রথমবার

ভারতীয় স্মার্টফোনের বাজার আমেরিকার বাজারকেও পেছনে ফেলে দেয়।

চিনের পর ভারত দ্বিতীয় স্মার্টফোনের বাজার হয়ে উঠেছে।

 

বর্তমানে ভারতে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৫০.৪ কোটি,

চিনের কাছে তা দ্বিতীয়। চিনে রয়েছে সবচেয়ে বেশি ইন্টারনেট

ব্যবহারকারী, যার সংখ্যা ৮৫০ কোটি।

 

ডিজিটাল ইন্ডিয়া হ্যাশট্যাগ দিয়ে এক টুইটে বিজেপির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে,

এবার গ্রাম ও শহরের বিভেদ ঘুচবে। প্রথমবার ভারতে শহরাঞ্চলের

থেকে গ্রামীণ এলাকায় ইন্টারনেট ব্যবহারকারী সংখ্যা বেশি।

 

২০১৯ এর নভেম্বরে গ্রামীণ এলাকায় ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর

সংখ্যা ২২.৭ কোটি এবং শহরে ভারতের ক্ষেত্রে সেই সংখ্যাটা

ছিল ২০.৫ কোটি। এককভাবে ইন্টারনেট উল্লখযোগ্যভাবে গ্রাম

ও শহরের মধ্যে সেতুবন্ধন করেছে।

 

২০১৭ সালে ইন্ডিয়া মোবাইল কংগ্রেসের একটি প্রতিবেদনে

বলা হয়, ভারতের মোট ইন্টারনেট ব্যবহারকারী ৩৩ শতাংশ,

গ্রামীণ এলাকায় সেই সংখ্যাটা ১৬ শতাংশ।

 

২০১৮ সালের শুরুর দিকে ইন্টারনেট ও মোবাইল অ্যাসোসিয়েশন

অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, ভারতের শহরে ১৯২ মিলিয়ন ব্যবহারকারী

রয়েছেন, যার কাছাকাছি রয়েছে গ্রামের মানুষ।

 

Check Also

মুনিয়ার অতীতের সব জানালেন তার বোন নুসরাত তানিয়া

মুনিয়াদের গ্রামের বাড়ি কুমিল্লা শহরের মনোহরপুর উজির দিঘির দক্ষিণ পাড়ে। সেখানে মুনিয়াদের পৈত্রিক একতলা পাকা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *