Breaking News

১৪ এপ্রিল থেকে আরও এক সপ্তাহের লকডাউনের কথা ভাবছে সরকার

১৪ এপ্রিল থেকে আরও এক সপ্তাহের লকডাউনের কথা ভাবছে সরকার। দেশে করোনা সং’ক্র’মণ

ভ’য়াব’হ রূপ নেয়ায় আবার লকডাউন দেওয়া যেতে পারে এমনটা জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের

 

সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। শুক্রবার (৯ এপ্রিল) সকালে সরকারি

বাসভবন থেকে ব্রিফিংকালে তিনি এ কথা জানান। ওবায়দুল কাদের বলেন, দেশের করোনা সং’ক্র’মণ

 

ভ’য়াব’হ রূপ নিয়েছে, লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ ও মৃ”ত্যু’র হার। বেড়েছে জনগণের অবহেলা ও

উদাসীনতা। এমতাবস্থায় সরকার জনস্বার্থে ১৪ এপ্রিল থেকে এক সপ্তাহের জন্য সর্বাত্মক লকডাউনের

 

বিষয়ে সক্রিয় চিন্তাভাবনা করছে। চলমান এক সপ্তাহের লকডাউনে জনগণের উদাসীন

মানসিকতার কোনো পরিবর্তন হয়েছে বলে মনে হয় না বলেও জানান তিনি।

মাদ্রাসা খোলা রাখলেই নেওয়া হবে ব্যবস্থা: নওফেল

মাদ্রাসাগুলোতে আবাসিক-অনাবাসিক যেগুলো আছে তা বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেওয়া আছে। এ নির্দেশনা

উপেক্ষা করে যারা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা রাখবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষা

 

উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। করোনা ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজ প্রদান কার্যক্রম বৃহস্পতিবার

(৮ এপ্রিল) থেকে শুরু হয়েছে চট্টগ্রামে। শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল চমেক

 

হাসপাতালে নিজে এই ডোজ নিয়েই দ্বিতীয় ডোজ প্রদান কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। চট্টগ্রামে করোনার

প্রথম ডোজ প্রদান কার্যক্রমও তিনি উদ্বোধন করেছিলেন। বৃহস্পতিবার করোনার দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ

 

শেষে নওফেল বলেন, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিদ্ধান্ত অমান্য করে যারা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো খোলা রাখবে

তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আজকে থেকে বিষয়টি মনিটরং করা হবে। তিনি বলেন, এতিমদের

 

কোনো জায়গা না থাকার কারণে এতিমখানাগুলো খোলা থাকবে। তবে কওমি মাদরাসাগুলোতে

আবাসিক-অনাবাসিক যেগুলো আছে তা বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেওয়া আছে। চট্টগ্রামে মজুদ থাকা ৫০

 

হাজার ডোজ নিয়ে বৃহস্পতিবার শুরু হলো করোনাভা’ইরা’সের সং’ক্র’মণ রোধে দ্বিতীয় পর্যায়ের টিকাদান

কর্মসূচি। শুক্রবার চট্টগ্রামে আরও ৩ লাখ ৬ হাজার ডোজ টিকা ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে আনার কথা

রয়েছে। শিক্ষা উপমন্ত্রী জেনারেল হাসপাতালে আরও ৮টি আইসিইউর উদ্বোধন করেন। এ উপলক্ষে

 

আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে নওফেল বলেন, সারা দেশের মধ্যে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতাল একটি দৃষ্টান্ত

হয়ে থাকবে। যে শূন্য থেকে কিভাবে একটি পূর্ণাঙ্গ কো’ভি’ড হাসপাতালে রূপ নিয়েছে। এখন এ

হাসপাতালে আইসিইউ সংখ্যা ১৮টি। পর্যায়ক্রমে এ হাসপাতালকে কিভাবে মেডিকেল কলেজে রূপ

দেয়া যায় সেই চেষ্টা করব।

 

 

Check Also

গোটা ভারত,জুড়ে ইঞ্জিনি,য়ারিং ভ,র্তি পরীক্ষায় মেধা তালিকার শী,র্ষে মুসলিম কিশোরী !

সারা ভারতে একযো,গে অ,নুষ্ঠিত ইঞ্জিনি,য়ারিং ভ,র্তি পরী,ক্ষা জ,য়েন্ট এন,ট্রেন্স এক্সামি,নেশন মেইন (জেইই- মেইন) পরী,ক্ষার ফলাফলে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *