১৪ বছরের ছা’ত্রীকে বিয়ে করতে গিয়ে পালিয়ে গেল ৪৫ বছরের ইউছুব

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া প্রসাশনের হস্তক্ষে’পে বাল্য বিয়ের হাত থেকে র’ক্ষা পেল অষ্টম শ্রেণির এক

মাদরাসাছা’ত্রী (১৩)। মে’য়েটি স্থানীয় গু’লিসাখী আলিফ সিনিয়ার মাদরাসার শিক্ষার্থী। বুধবার দিনগত

 

রাতে মে’য়েটির অমতে দুই পরিবার তার বাল্য বিয়ের আয়োজন করেছিল। অ’ভিযো’গ পেয়ে গু’লিসাখালী

ইউনিয়নের বান্ধব পাড়া গ্রামের মালয়েশিয়া প্রবাসীর বাড়িতে উপস্থিত হয়ে উপজে’ল মহিলা বিষয়ক কর্মক’র্তা

 

মনিকা আক্তার সাংবাদিক ও পু’লিশ নিয়ে এ বাল্য বিয়ে প’ণ্ড করে দেন। প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, উপজে’লার

মিরুখালী হারজী গ্রামের ওমান প্রবাসী ইউছুব সরদারের (৪৫) সঙ্গে অষ্টম শ্রেণির পড়ুয়া মে’য়ের বিয়ের আয়োজন

 

চলছিল। বিষয়টি স্থানীয় লোকজন সাংবাদিক ইস’রাত জাহান মমতাজকে অবহি’ত করলে তিনি ইউএনওকে

তাৎক্ষণিক জানান। পরে বুধবার রাতেই মহিলা বিষয়ক কর্মক’র্তা মনিকা আক্তার পু’লিশ ও স্থানীয় সাংবাদিক

 

ইস’রাত জাহান মমতাজ, রফিকুজ্জামান আবীর, মাসুদ গাজ পু’লিশ নিয়ে বিয়ে বাড়িতে উপস্থিত হন। এ সময়

তাদের উপস্থিতি টের পেয়ে বরযাত্রী, কনের মা ও অন্যান্য স্বজনরা পা’লিয়ে যান। এই ঘটনার পর স্থানীয় সাবেক

 

ইউপি সদস্য লিটন মালের উপস্থিতিতে মে’য়েটির মা খাদিজা খাতুনকে ডে’কে আনা হয়। পরে ১৮ বছর আগে

মাদরাসাছা’ত্রীকে বিয়ে না দেবার শ’র্তে লিখিত দিয়ে ছাড়া পান কনের মা। উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তা ঊর্মি

 

ভৌমিক জানান, সংবাদ পেয়ে বিয়ে বন্ধের জন্য মহিলা বিষয়ক কর্মক’র্তাকে ঘটনাস্থলে পাঠিয়ে তাৎক্ষণিক

বাল্য বিয়ের ব’ন্ধ করা হয়। বাল্য বিবায়ে প্র’তিরো’ধে অ’ভিযা’ন অব্যাহ’ত থাকবে।

 

 

Check Also

নিঃস্ব হওয়ার পথে ভারত!

জাতিসংঘের শিশু তহবিল ইউনিসেফ বলছে, ভারতে প্রতি সেকেন্ডে চারজন করে নতুন করো’না রোগী শনা’ক্ত হচ্ছে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *