প্রকাশ্যে ছেলেসহ বি’রোধী দলীয় নে’তাকে গু’লি করে হ’ত্যা

রাস্তা নির্মাণ নিয়ে বি’রোধের জেরে’ ভারতের উত্তর প্র’দেশের বিরোধী দল সমাজবাদী

পা’র্টির এক নেতা ও তার ছেলেকে গু’লি করে হ’ত্যা করার এক ভ’য়াবহ ভিডিও প্রকাশ্যে এসেছে,

যা দেখে আ’তঙ্কে শিউরে উঠছেন সকলে। প্রকাশ্যে গু’লি চালানোর এই ঘটনার একটি ভিডিও

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

 

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, গত রবিবার যোগী আদিত্যনাথের রাজ্য

উত্তর প্রদেশের প্রাদেশিক রাজধানী লখনউ থেকে ৩৭৯ কিলোমিটার দূরের সম্ভল জেলার

শামসোই গ্রামে এই হ’ত্যাকা’ণ্ড ঘটেছে। এনডিটিভি জানিয়েছে, সরকারের ১০০ দিনের

 

কর্মসূচির আওতায় কৃষি জমির উপর দিয়ে একটি রাস্তা প্রশস্ত করার কাজ তদারকি

করছিলেন সমাজবাদী পার্টির স্থানীয় নেতা ছোটেলাল দিবাকর ও তার ছেলে সুনীল কুমার।

স্থানীয়রা নিজেদের জমিতে রাস্তা তৈরির কাজে বাধা দিলে তর্কাতর্কিতে জড়িয়ে পড়েন তারা।

 

এক পর্যায়ে সেখানে রা’ই’ফেল হাতে নিয়ে দুই ব্যক্তিকে তেড়ে আসতে দেখা যায়।

তারা জানিয়ে দেন, অন্যদের জমির উপর দিয়ে রাস্তা গেলেও, তাদের জমির উপর মাটি

ফেলা যাবে না। জবাবে ছোটেলাল জানান, সরকারি নির্দেশেই কাজ চালাচ্ছেন তিনি।

 

এ নিয়ে তর্কতর্কির এক পর্যায়ে পাশ থেকে ‘গু’লি চালা, মে’রে ফেল’ বলে কয়েকজনকে

উসকানি দিতে শোনা যায়। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে সাদা ও

গোলাপী রঙের জামা পরিহিত দুই ব্যক্তিকে গু’লি ছুঁ’ড়তে দেখা গেছে। এতে একজন লুটিয়ে পড়লে

 

বাকিদের ছুটে পা’লিয়ে যেতে দেখা যায়। স্থানীয় পুলিশ জানিয়েছে, গু’লিবিদ্ধ হয়ে

ঘটনাস্থলেই ছোটেলাল ও তার ছেলে সুনীল কু’মারের মৃ’ত্যু হয়। তবে হ’ত্যাকা’ণ্ডের পর

কাউকে ‘গ্রেপ্তা’র করা সম্ভব হয়নি। তবে স’ন্দেহভা’জন কয়েকজনকে আ’টক করে

জিজ্ঞাসাবাদ করার কথা জানিয়েছেন সেখানকার সিনিয়র পুলিশ অফিসার যমুনা প্রসাদ।

 

হ’ত্যাকা’ণ্ডের ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়ে সমাজবাদী পা’র্টির প্রাক্তন সাংসদ ধ’র্মেন্দ্র যাদব বলেছেন,

‘ছোটেলাল প’রিশ্রমী নেতা ছিলেন। ২০১৭ সালের বিধানসভা কেন্দ্র থেকে নির্বাচনে দাঁড়ালেও

পরে ওই আসনটি জোটসঙ্গী কংগ্রেসকে ছেড়ে দেওয়া হয়।’

সূত্র- এনডিটিভি।

Check Also

বিশ্বের প’রাশ’ক্তি হতে যাচ্ছে তুরস্ক

  ব্যাপক অনুসন্ধানের পরে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান গত শুক্রবার আনন্দের সাথে ঘোষণা করেন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *