করোনাকে দূরে রাখতে খাবেন যে ১০ খাবার

করোনাকে দূরে রাখতে খাবেন যে ১০ খাবার

ক’রোনাভা’ইরাসের তাণ্ডবে বিপর্যস্ত পুরো ‘বিশ্ব। প্রতিদিনই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে মৃ’ত্যু’

ও ‘আ’ক্রান্তে’র সংখ্যা। এখনো আ’বিষ্কার হয়নি এই ম’হামা’রীর প্রতিষেধক।

আপাতত প্রতিকারের চেয়ে প্রতিরোধই একমাত্র পন্থা এই ভা’ইরাস থেকে বাঁচার।

 

তাই করোনাকে দূরে রাখতে পারে এমন ১০ খাবারের নাম।

১. সবজি: করলা (বিটা ক্যারোটিনসমৃদ্ধ), পারপেল/লাল পাতা কপি, বিট, ব্রোকলি,

গাজর, টমেটো, মিষ্টি আলু, ক্যাপসিকাম, ফুলকপি।

 

২. শাক: যেকোনো ধরনের ও রঙের শাক।

৩. ফল: কমলালেবু, পেঁপে, আঙুর, আম, কিউই, আনার, তরমুজ, বেরি, জলপাই, আনারস ইত্যাদি।

৪. মসলা: আদা, রসুন, হলুদ, দারুচিনি, গোলমরিচ।

৫. বীজ জাতীয়: শিম বিচি, মটরশুঁটি

 

 

৬. টক দই: এটি প্রোবায়োটিকস, যা শ্বাসযন্ত্র ও পরিপাকতন্ত্র সংক্রমণের ঝুঁকি প্রতিরোধ করে।

৭. চা: গ্রিন টি, লাল চায়ে এল-থেনিন এবং ইজিসিজি নামক অ্যান্টি–অক্সিডেন্ট থাকে, যা আমাদের শরীরে

জীবাণুর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের অনেক যৌগ তৈরি করে শরীরে রোগ প্রতিরোধব্যবস্থাকে শক্তিশালী করে।

 

৮. সামুদ্রিক খাবার: সামুদ্রিক মাছ। এগুলো শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরির কোষ বৃদ্ধি করে।

তাই এ ধরনের খাবার বেশি খেতে হবে।

৯. উচ্চ মানের আমিষজাতীয় খাবার (ডিম, মুরগির মাংস ইত্যাদি) বেশি করে খেতে হবে।

১০. বার্লি, ওটস, লাল চাল ও আটা, বাদাম।

 

এটাই যেন জীবনের শেষ ঈদ শপিং না হয় : আইজিপি

জীবনের শেষ শপিং- মহা’মারী ক’রোনা চলাকালে এটাই জীবনের শেষ শপিং না হয়।

ঈদের নামে শপিং করা থেকে সতর্ক থাকুন। এমন মন্তব্য করেছেন পুলিশ মহাপরিদর্শক

(আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ। মঙ্গলবার (১৯ মে) দুপুরে রাজারবাগে পুলিশ লাইন্স

 

অডিটোরিয়ামে আসন্ন ঈদুল ফিতর ও ক’রোনা মহা’মা’রিতে আ’ইন-শৃ’ঙ্খলা বিষয়ে

ব্রি’ফিংয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন। আইজিপি বেনজীর আহমেদ বলেন, শপিংমল

ও শপিং সেন্টারগুলো খোলা হয়েছে। আমরা মার্কেট সমিতির সঙ্গে কথা বলেছি,

 

এসকল বিষয়ে সরকার নির্দেশ জারি করেছে, যাতে করে মার্কেটগুলোতে শপিং নি’রাপদ হয়।

আমরা শপিংয়ে একটি কথা উচ্চারণ করছি, ‘স্বাস্থ্যবিধি ও সুরক্ষাবিধি যেগুলো আছে,

সেগুলো অবশ্যই আমাদের মেনে চলতে হবে।

 

আইজিপি বলেন, এক্ষেত্রে মার্কেট সমিতি, সেলস পারসন, ক্রেতা, বিক্রেতা সবাইকে

মানতে হবে। শপিং করতে চাইলে স্বা’স্থ্য’বিধি মেনেই করতে হবে। ৫ দোকান দেখে ১০

দোকান দেখার পর এক দোকানে শপিং করার আমাদের একটা কালচার আছে।

এবার সেটাকে পরিহার করতে হবে। শপিংয়ের বেলায় আপনারা সতর্ক থাকবেন,

যেন এটাই আপনার জীবনের শেষ শপিং না হয়।

 

বেনজীর আহমেদ আরও বলেন, করোনায় মৃ”ত্যু হচ্ছে, কিন্তু এটা কোনো জুজুর

ভয় নয়। এটা কিন্তু রিয়েল ফ্যাক্ট। তাই যে স্বা’স্থ্যবিধির কথা বলা হয়েছে। সেটা

বিক্রেতা-ক্রেতা উভয়ই মেনে চলবেন। আমরা যদি এগুলো মেনে চলি, আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস

বৈশ্বিক এই দুর্যোগ থেকে জাতিকে দেশকে জনগণকে তুলনামূলকভাবে রক্ষা করতে পারবো।

মৃ”ত্যু’র মিছিলে আপনি শুধু একটি সংখ্যা কিন্তু পরিবারের কাছে পৃথিবী

 

সরকারি আদেশ অমান্য করে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন শহর থেকে গ্রামের

বাড়ি যাওয়ার প্রবণতা ক’রোনাভা’’ইরা’স সং’ক্র’মণের ঝুঁ’’কি বাড়াচ্ছে উল্লেখ করে

পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ বলেছেন, মনে রাখবেন,

বেঁচে থাকলে অনেক ঈদ করতে পারবেন, কিন্তু ঝুঁ’কি নিয়ে বাড়ি গিয়ে ঈদ করা

 

যেন শেষ ঈদ না হয়। আপনার কারণে শুধু আপনি নন, আপনার পরিবারের সদস্যরাও

মৃ”ত্যুঝুঁ’কিতে পড়তে পারেন। আজ মঙ্গলবার (১৯ মে) দুপুরে রাজারবাগ পুলিশ

অডিটোরিয়ামে গণমাধ্যমের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ কথা বলেন। আসন্ন

পবিত্র ঈদুল ফিতর ও করোনা’ভাই’রাস মহা’মারির প্রেক্ষাপটে আ’ই’ন-শৃ’ঙ্খলা’ বিষয়ে

 

এ মতবিনিময়ের আয়োজন করা হয়।

আইজিপি বলেন, গত এপ্রিল মাসে দেশে মাত্র ২৪ জেলা ক’রোনা সংক্র’মিত ছিল।

কিন্তু পরে নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুর থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে গমনাগমনের ফলে

সং’ক্র’ম’ণ সারাদেশে ছড়িয়ে পড়েছে। প্রতিদিনই ক’রোনা’ভাই’রাসে আ’ক্রা’ন্ত ও মৃ”ত্যুর সংখ্যা বাড়ছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 NewsTheme
Design BY jobbazarbd.com