আবারো বলিউডে করোনার হানা, আ’ক্রান্ত হলে জনপ্রিয় অভিনেতা!

আবারো বলিউডে করোনার হানা, আ’ক্রান্ত হলে জনপ্রিয় অভিনেতা!

আবারো করো’না ভাই’রাস হানা দিলো বলিউডে। কণিকা কাপুর, পূরব কোহলি ও

মোরানি পরিবারের পর এবার এই মহামা’রিতে আ’ক্রান্ত হয়েছেন বর্ষীয়ান অ’ভিনেতা

কিরণ কুমা’র। তিনি নিজেই কোভিড-১৯ পজিটিভ হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

 

কিরণ কুমা’রের বরাত দিয়ে দ্য হিন্দুস্তান টাইম জানায়, শনিবার (২৩ মে) অ’ভিনেতা

নিজেই করো’না আ’ক্রান্ত হাওয়ার বিষয়টি সবাইকে জানিয়েছেন।

গত ১৪ মে তার করো’নার নমুনা পরীক্ষার ফল পজিটিভ আসে। তবে তার শরীরে কোনো উপসর্গ নেই।

 

তখন থেকেই নিজ বাসায় আইসোলেশনে রয়েছেন তিনি। কিরণ কুমা’র বলেন, জ্বর,

কাশি কিংবা শ্বা’সক’ষ্টজনিত কোনরকম সমস্যা বা করো’নার অন্য কোনো উপসর্গ আমা’র নেই।

আমি সুস্থ আছি, ১০ দিন ধরে নিজ বাড়িতে পরিবারের সবার থেকে আলাদা রয়েছি।

 

সবকিছু নিজেই করছি। ৭৪ বছর বয়সী এই অ’ভিনেতা আরো জানান, গত ১৪ মে

অন্যকিছু মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য তিনি হাসপাতা’লে যান। তখন একসঙ্গে তিনি

করো’নারও পরীক্ষা করান। পরে সে ফল পজিটিভ আসে। দুই-তিনদিনে মধ্যে তার

 

পুনরায় করো’নার পরীক্ষা করানো হবে। প্রয়াত অ’ভিনেতা জীবন কুমা’রের ছে’লে কিরণ কুমা’র।

বড় পর্দার পাশাপাশি ছোটপর্দাতেও দাপটের সঙ্গে অ’ভিনয় করছেন তিনি।

‘মুঝসে দোস্তি করোগে’, ‘জুলি’র মতো অসংখ্য বলিউড সিনেমায় অ’ভিনয় করেছেন

কিরণ কুমা’র। এছাড়া ‘মিলি’, ‘গৃহস্তি’, ‘জিন্দেগি’র মতো ধারাবাহিকে দেখা গেছে তাকে।

 

অবশেষে বিলীন হয়ে যাচ্ছে ইহুদি দেশ ইসরায়েল

লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহ মহাসচিব সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ বলেছেন,

ই’হুদিবাদী ই’সরায়েল তার প্রতিষ্ঠার পরে মোট ৮০ বছর টিকবে কিনা এখন সেই চিন্তায় পড়েছে।

ই’সরায়েলের নেতারা এখন তাদের রা’জনৈতিক অস্তিত্বের সংকটে রয়েছেন।

 

গতকাল (মঙ্গলবার) টেলিভিশনের মাধ্যমে দেয়া বক্তৃতায় সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ

এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, অধিকৃত ভূখণ্ডে গণজাগরণ সৃষ্টি হয়েছে। এই

গণজাগরণের মুখে ই’সরায়েলের অস্তিত্ব থাকবে কিনা সেই প্রশ্ন নিয়ে

 

শঙ্কিত ই’সরায়েল সরকার। ই’সরায়েলি নেতারা আ’শঙ্কা করছেন যে, ই’হুদি’বাদী রাষ্ট্র হয়তো

৮০ বছরের বেশি টিকবে না। ব্রিটেন এবং আমেরিকাসহ পশ্চিমা কয়েকটি দেশের ষ’ড়য’ন্ত্রে

১৯৪৮ সালে ই’হু’দি’বাদী ই’স’রায়েল প্রতিষ্ঠার পর থেকে বিপুল পরিমাণে আরব ভূ’খণ্ড দখল করে।

 

পাশাপাশি ১৯৬৭ সালে ছয় দিনের আরব-ই’সরা’য়েল যু’দ্ধে পশ্চিম তীরসহ অনেক গুরুত্বপূর্ণ

এলাকা দখলে নেয়। এরপর বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে জড়ো করা লোকজনের জন্য ইহুদিবাদী

সরকার ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে অ’বৈধ ই’হুদি বসতি গড়ে তোলে।

 

এ কাজে মার্কিন ও পশ্চিমা মিত্ররা ই’স’রায়েলকে অব্যাহত সমর্থন দিয়ে আসছে। তবে এত

কিছুর পরেও ফি’লি’স্তিনে গণজাগরণ ঠেকাতে পারে নি ই’স’রায়েল। দিন দিন ই’হু’দিবাদী

সরকারের বি’রু’দ্ধে ফি’লিস্তিনের গাজা ও পশ্চিম তীরে গণজাগরণ শ’ক্তি’শালী হচ্ছে।

 

গতকালের ভাষণে হাসান নাসরুল্লাহ করোনাভাইরাসের মহামারী ইস্যুতেও কথা বলেছেন।

লেবাননে স্বাস্থ্যকর্মীরা ক’রোনাভা’ইরাস মোকাবেলায় জনগণকে যে আন্তরিক সেবা

দিয়ে চলেছেন তাতে তিনি সবাইকে ধন্যবাদ জানান।

সূত্র : পার্সটুডে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 NewsTheme
Design BY jobbazarbd.com