প’ঙ্গপা’লের ভ’য়া’বহ হানা, ভারতের তিন রাজ্যের ঘু’ম হা’রাম!

প’ঙ্গপা’লের ভ’য়া’বহ হানা, ভারতের তিন রাজ্যের ঘু’ম হা’রাম!

আম্ফা’নের তাণ্ডব কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই পঙ্গপা’লের হানা। চর’ম হু’মকিতে ভা’রতের অর্থনীতি।

এ মাসের শুরুতে রাজস্থানে প্রবেশের পর এখন মধ্যপ্রদেশ ও উত্তর প্রদেশেও ছড়িয়ে পড়েছে

পঙ্গপালের কয়েকটি ঝাঁক। এদের একটি দল দিল্লীর দিকে যাচ্ছে বলেও অনুমান করা হচ্ছে।

 

প্রায় আড়াই থেকে ৩ কিলোমিটার দীর্ঘ প’ঙ্গপা’লের এ ঝাঁ’ক থেকে রক্ষা পেতে উত্তরপ্রদেশ ও

মধ্যপ্রদেশের কৃ’ষক ও কর্মকর্তাদের ঘুম হা’রাম। ফসল বাঁ’চাতে স’ত’র্কতা অবলম্বন করছে

দুই রাজ্যের সরকার। কোথাও রাসায়নিক স্প্রে কোথাও বা ধাতব শব্দ করে পঙ্গপালের হাত

 

থেকে রেহাই পেতে চেষ্টা করছে চাষিরা। রাজস্থান থেকে ড্রো’ন চাওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে।

মধ্যপ্রদেশের কর্মকর্তারা জানান, ২৭ বছরের মধ্যে বৃহত্তম পঙ্গপালের আ’ক্রম’ণ হতে চলেছে

এ রাজ্যে। বর্ষা না আসা পর্যন্ত এই সংকট বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

 

রাজস্থানের বেশ কয়েকটি জায়গায় সবজি, ফসল ও গাছ ধ্বংস করার পর প’ঙ্গপা’লের

একটি ‘ঝাঁ’ক মধ্যপ্রদেশের মু’খ্যম’ন্ত্রী শিবরাজ সিংহের নির্বাচনী এলাকা বুধনিতে প্রবেশ করে।

এরা রাজ্যের নিমুচ জেলা দিয়ে প্রবেশ করেছে, পরে মালওয়া নিমারের কিছু অংশ পাড়ি দিয়ে

এখন ভোপালের কাছে রয়েছে।

 

রাজ্য কৃষি বিভাগের উপ-পরিচালক কমল কাটিয়ার বলেন, ‘আমরা খবর পেয়েছি রাজ্যে

২.৫ থেকে ৩ কিলোমিটার দীর্ঘ প’ঙ্গপা’লের ঝাঁ’ক ঢুকে পড়েছে। তবে রাজস্থানের কোটা

থেকে একটি দল রাজ্যে আসছে প’ঙ্গপা’ল মোকাবিলায় সহায়তা করতে। ’

 

বি’শেষ’জ্ঞরা হুঁ’শিয়া’রি দিয়েছেন, খুব শিগগরই পঙ্গপাল নি’য়ন্ত্র’ণ করা না গেলে প্রায় ৮ হাজার

কোটি টাকার স্থায়ী মুগ ডালের ফসল ন’ষ্ট করতে পারে শুধু মধ্যপ্রদেশে। ফল ও শাকসবজির

বাগানগুলো’ও ক্ষ’তিগ্র’স্থ করবে। তাঁরা জানান, এগুলো নি’য়ন্ত্র’ণ করা না গেলে এবং দীর্ঘ দূরত্ব

 

পাড়ি দিয়ে ফেললে কয়েক হাজার কোটি টাকার তুলা ও মরিচ ফসলেরও ক্ষ’তি হতে পারে।

রাজস্থান থেকে উত্তর প্রদেশেও পঙ্গপালের দল ছড়িয়ে পড়েছে।

উত্তরপ্রদেশের ঝাঁ’সিতে জেলা প্রশাসন দমকল বাহিনীকে রা’সায়’নিক নিয়ে প্র’স্তুত

 

থাকার নির্দেশ দিয়েছে। ঝাঁসির জেলাপ্রশাসক অন্দ্র ভামসি সম্প্রতি এই বিষয়ে বৈঠক করেন।

তিনি জানান, ‘গ্রামের মানুষদের এই পঙ্গপালের সম্পর্কে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।

দেখতে পেলেই দ্রুত নিয়ন্ত্রণ কক্ষে খবর দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সবুজ ঘাস ও সবুজ

 

রঙের ফসল দেখলেই প’ঙ্গপাল আ’ক্রম’ণ করছে। ’ ২০১৯ সালে রাজস্থানের ১২ জেলায়

পঙ্গপাল হানা দিয়ে ৬ লাখ ৭০ হাজার হেক্টর জমির ফসল ন’ষ্ট করে।

ওই বছর ১ হাজার কোটি রুপির আর্থিক ক্ষতি হয়। এবার পরিস্থিতি মোকাবেলায় রাজ্যের

 

কৃষিবিভাগ ৪৫ টি পিকআপ, ৭০ টি যান দিয়ে পরিস্থিতি মনিটরিং করছে এবং ৬০০ ট্রাক্টর

দিয়ে আক্রান্ত এ’লাকাগুলোতে কী’টনা”ক ছিটাচ্ছে। তারা কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে ড্রো’ন

চেয়েছে প’ঙ্গ’পাল দমনের জন্য। রাজস্থানের অনেক এলাকা সাবাড় করে পঙ্গপালের একটি

দল ছুটে চলেছে হরিয়ানার দিকে।

 

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 NewsTheme
Design BY jobbazarbd.com