আজ ৫০ দিন পর গণভবন থেকে বের হচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

আজ ৫০ দিন পর গণভবন থেকে বের হচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

মহামা’রী করোনাভা’ইরাসের কারণে সারা দেশে চলছে অচলাবস্থা। সংবিধানের ‘নিয়ম র’ক্ষায়’

গত ১৮ এপ্রিল শুরু হয় জাতীয় সংসদের সপ্তম অধিবেশন। ওইদিন সংসদ

অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ সরকারি ও বিরোধী দলের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

 

সেই ছিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সর্বশেষ গণভবন থেকে বের হওয়া।

আসন্ন নতুন অর্থবছরের জন্য জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের বাজেট ঘো’ষণা করা হবে

সোমবার (৮ জুন)। এর আগে বেলা ১১টায় সংসদ ভবনে সংসদ সচিবালয়ের ৩১তম

 

কমিশন বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপির সভাপতিত্বে বৈঠকে

কমিটির সদস্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপস্থিত থাকবেন। সেই ১৮ এপ্রিলের পর প্রধানমন্ত্রী

গণভবন থেকে বের হচ্ছেন আজ সোমবার (৮ জুন)। গণভবন থেকে বের না হলেও প্রধানমন্ত্রী

 

একাই যেন লড়ছেন এই করোনার স’ঙ্গে। প্রতিনিয়ত ভিডিও কনফারেন্স বৈঠকের মাধ্যমে দিক

নির্দে’শনা দিচ্ছেন সংশ্লিষ্টদের। সারাদেশের জে’লা উপজে’লা পর্যায়ে রয়েছে তার যোগাযোগ।

এর মাধ্যমে তিনি করোনা প’রিস্থিতিসহ দেশের সকল বিষয়ে খোঁজ খবর ও দিক নির্দে’শনা দিচ্ছেন।

 

এবার দেখার বিষয় ওবায়দুল কাদের কথা শোনেন কি না

ক’রোনা সংকটের এই দুর্দি’নে শ্রমিকদের ছাঁ’টাই না করার আহ্বান জানিয়েছেন

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ‘শ্রমিকরা সুদিনে মালিকদের মুনাফা এনে দিয়েছে।

 

দেশের এই সংকটকা’লে ছাঁ’টাইয়ের মতো অসন্তোষ উ’দ্রেককা’রী সি’দ্ধান্তের খবর

মড়ার ওপর খাঁড়া’র ঘা’ মতো অবস্থা হবে।’ তিনি বিজিএমইএসহ সংশ্লিষ্টদের বিষয়টি

মানবিক দিক বিবেচনায় নিয়ে সমন্বয়ের আহ্বান জানান। সোমবার (৮ জুন) সরকারি

 

বাসভবন থেকে অনলাইন ব্রিফিংকালে তিনি এ আহ্বান জানান। ব্যবসায়ীদের শুধু ব্যবসা

নয়, অসহায় মানুষগুলোর প্রতি সহমর্মী হয়ে ছাঁটাই না করার জন্য মালিকদের প্রতি

অনুরোধ জানান ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, গণপরিবহনে দূরপাল্লায় অভি’যোগ না

 

থাকলেও শহর এলাকায় ভা’ড়া বৃ’দ্ধির কিছু অভি’যোগ পাওয়া যাচ্ছে। তা প্রতিরোধে

মালিক শ্রমিকদের পাশাপাশি যাত্রীদেরও সচেতন হতে হবে মন্তব্য করে তিনি সবাইকে

স্বাস্থ্যবিধি মেনে এবং যাত্রীদের থেকে বাড়তি ভাড়া না নিতে মালিক শ্রমিকদের প্রতি

 

আহ্বান জানান। কাদের আরও বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঘরে ঘরে সুরক্ষা

ও সচেতনতার দূর্গ গড়ে তুলতে হবে। ইনশাআল্লাহ এ সংকট মোকাবিলা করে আমরা

চিরচেনা সজীবতায় ফিরে আসবো। সংকটের মেঘ অচিরেই কেটে যাবে সবার সম্মিলিত

 

প্রচেষ্টায়।’ সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে কর্মরতদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি

বলেন, করোনা ও অন্যান্য রোগীদের সেবায় মানবিক হোন। ইতোমধ্যে চিকিৎসা না পেয়ে

হাসপাতাল ঘুরে ঘুরে অনেকের মৃ’ত্যুবর’ণের মতো ঘটনাও ঘটেছে। তাই হাস’পাতাল

 

 

প্রচেষ্টায়।’ সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে কর্মরতদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি

বলেন, করোনা ও অন্যান্য রোগীদের সেবায় মানবিক হোন। ইতোমধ্যে চিকিৎসা না পেয়ে

হাসপাতাল ঘুরে ঘুরে অনেকের মৃ’ত্যুবর’ণের মতো ঘটনাও ঘটেছে। তাই হাস’পাতাল

কর্তৃপক্ষকে মান’বিক আ’চরণ ও সহানুভূ’তিশীল হতে হবে।

 

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 NewsTheme
Design BY jobbazarbd.com