চীনকে মোকাবেলায় সেনাবাহিনীকে পূর্ণ স্বাধীনতা দিল ভারত

লা’দাখে চীন-ভারত সংঘ’র্ষ নিয়ে মঙ্গলবার (১৬ জুন) রাত্রে আলোচনায় বসেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী

নরেন্দ্র মোদী ও চার হেভিওয়েট মন্ত্রী।ক্যাবিনেট মিটিংয়ে ছিলেন ভারতীয় সেনার চিফ

জেনারেল এমএম নারাভানে। বুধবার (১৭ জুন) নিয়ন্ত্রণরেখায় চীনের আগ্রাসনের মোকাবিলা করতে

 

সেনাবাহিনীকে পূর্ণ স্বাধীনতা দিল ভারত সরকার। শান্তি বজায় রাখার সম্পূর্ণ প্রচেষ্টা করা হলেও

সীমান্তে ভারতের এলাকায় চীনের কোনওরকম প্রবেশ ও আগ্রাসন মেনে নেবে না বলে সাফ জানিয়ে

দিল ভারত। তাই পরিস্থিতি অনুযায়ী নিজেদের সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য ভারতীয় সেনাকে দেওয়া হল অনুমতি।

 

ভারত-চীন সীমান্ত পরিস্থিতি নিয়ে মঙ্গলবার রাতে তার ৪ মন্ত্রীকে নিয়ে জরুরি বৈঠকে বসেন প্রধানমন্ত্রী

নরেন্দ্র মোদী। লাদাখে সী’মান্তে চিনের সেনার সঙ্গে সংঘ’র্ষে ভারতীয় সেনার মৃ’ত্যুর পর বর্তমানে

সী’মান্তের উদ্বেগজনক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেন তাঁরা। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

 

অমিত শাহ, প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং, বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর ও অর্থমন্ত্রীর নির্মলা সী’তারমণ।

আলোচনায় উপস্থিত ছিলেন ভারতীয় সেনার চিফ জেনারেল এমএম নারাভানে।

ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো জানায়, রাত ১০টা নাগাদ মন্ত্রীদের নিয়ে আলোচনায় বসেন প্রধানমন্ত্রী। সী’মান্তের

 

উত্তেজনা, পরবর্তী কূটনৈতিক পদক্ষেপ, সেনাবাহিনীর অবস্থান ইত্যাদি নিয়ে গভীর রাত

পর্যন্ত আলোচনা  করেন তারা। উত্তেজনা, পরবর্তী কূটনৈতিক পদক্ষেপ, সেনাবাহিনীর অবস্থান

ইত্যাদি নিয়ে   গভীর রাত পর্যন্ত আলোচনা করেন তারা।

 

ব্রেকিং: ডা. জাফরুল্লাহর অবস্থা জটিল, আবারও আইসিইউতে

স্ট্রো’ক হলে অনেক সময় মানুষ প্যা’রালাই’জড হয়ে যায়। তাৎক্ষণিক স্ট্রো’কের জটিলতা কেটে গেলেও

প্যারালাইসিস কবে সারবে না সারবে, সেটা বলা কঠিন। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর ক্ষেত্রেও তাই হয়েছে। তার করো’না সেরে গেছে। কিন্তু করো’না তার নিউ’

 

মোনি’য়ার জটিলতা তৈরি করে গেছে। তাছাড়া কি’ডনি ফেইলিউর (অচল) থাকায় আগে থেকেই

তার ফু’সফুসে কিছু সমস্যা ছিল। সবকিছু মিলিয়ে জাফরুল্লাহর অবস্থাটা এখন একটু জটিল।’

বুধবার (১৭ জুন) সকালে এসব কথা বলেছেন গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজের ভাইস

 

প্রিন্সিপাল এবং কো’ভিড-১৯ কিট প্রকল্পের সমন্বয়ক ডা. মুহিব উল্লাহ খোন্দকার। তিনি বলেন,

‘উনার শারীরিক অবস্থা আগে যে অবস্থায় ছিল, এখন পর্যন্ত অ্যাডভান্সড হয়নি।

আগে তো তার কো’ভিড প’জেটিভ ছিল, সেটা নেগেটিভ হয়ে গেছে। আর উনার নিউ’মোনি’য়া

 

যেটা, রোগ যেটা, এখন উনার সমস্যা যেটা, সেটা এখনও খুব একটা ভালোর দিকে যায়নি। তিনি এখনও

আ’ন্ডারট্রিট’মেন্টে (চিকিৎসাধীন) আছেন। যদিও তিনি কনশাস (চেতন)। কোনো অক্সিজেন লাগছে না।

উনি নিজে নিজেই বাথরুমে যাচ্ছেন। নড়াচড়া করছেন। উনার ফু’সফু’সে যে নিউ’মোনি’য়া, সেটা

 

থেকে এখনও উনি নিরাপদ পর্যায়ে আসেননি। এখনও ক্রিটিক্যাল পর্যায়ে আছেন। উনি আইসিইউতে

ভর্তি আছেন।’ ডা. জাফরুল্লাহ মনোবল আর লাখো মানুষের দোয়ার ওপর ভিত্তি করে বেঁচে আছেন

বলেও মন্তব্য করেন মুহিব উল্লাহ খোন্দকার। বলেও মন্তব্য করেন মুহিব উল্লাহ খোন্দকার।

Check Also

বিশ্বের প’রাশ’ক্তি হতে যাচ্ছে তুরস্ক

  ব্যাপক অনুসন্ধানের পরে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান গত শুক্রবার আনন্দের সাথে ঘোষণা করেন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *