মাসিকের কত দিন আগে বা পরে স’হবা’স করলে বাচ্চা হয় না!

মাসিকের কত দিন আগে বা পরে স’হবা’স করলে বাচ্চা হয় না!

পিরিওডের র’ক্তক্ষরণ শুরু হওয়ার দিন থেকে প্রথম সাত দিন ও শেষ সাত দিন স’হবা’স

করলে গর্ভধারণের সম্ভাবনা কম থাকে। তাই ওই সময়কে স’হবা’সের নিরাপদ সময় হিসেবে ধরা হয়।

তবে এই শর্ত কেবল সেই সকল না’রীদের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য যাদের পিরিওড নি’য়মিত

 

২৮ দিন (বা নি’য়মিত ২৬ থেকে ৩১ দিন) অন্তর অন্তর হয়। এদের ক্ষেত্রে র’ক্তস্রাব শুরু

হওয়ার দিনকে প্রথম দিন ধরে গুণতে থাকলে মোটামুটি ১২ থেকে ১৯ তম দিনে ডিম্বাণু নির্গমণ হয়।

পিরিওডের বাকি দিনগুলো, প্রথম থেকে সপ্তম ও ২১ তম দিন থেকে পুনরায় রজস্রাব

 

শুরু হওয়ার দিন পর্যন্ত মি’লনের নিরাপদ সময় হিসেবে গন্য করা হয়। মনে রাখবেন যে

র’ক্তক্ষরণ শুরু হবার দিনকে প্রথম দিন ধরেই কিন্তু উপরোক্ত হিসেব দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখযোগ্য যে পিরিওডের কোন দিনই প্রকৃত নিরাপদ দিন নয়। উপরিউল্লিখিত

 

নিরাপদ সময়ে মি’লন করলেও গর্ভধারণের স্বল্প হলেও কিছুটা সম্ভাবনা থেকেই যায়।

কাজেই অপর কোন জন্ম নিয়ন্ত্রণের উপায়, নিরাপদ সময়ে মি’লন করলেও গর্ভধারণের স্বল্প

হলেও কিছুটা সম্ভাবনা থেকেই যায়। কাজেই অপর কোন জন্ম নিয়ন্ত্রণের উপায়,

 

স্বামীকে বেঁধে রেখে নববধূকে গণধ’র্ষ`ণ

চট্টগ্রামের পটিয়া উপজে’লার কোলাগাঁও বড়ুয়াপাড়া এলাকায় স্বামীকে বেঁ’ধে রেখে

নববধূকে গণধ’র্ষণ মা’মলায় মিন্টু (৩৩) ও জুয়েল (২৮) নামের দুইজনকে গ্রে’প্তার করেছে র‌্যা’ব-৭।

গত ৭ জুন এই গণধ’র্ষণের ঘটনা ঘটে। ধৃত জুয়েল কোলাগাঁও গ্রামের আজিজুল হক

 

মেম্বার বাড়ির ফোরক মাঝির ছে’লে। আর মিন্টু একই এলাকার সত্তরের ছে’লে।

ঘটনার বি’ষয়ে র‌্যা’ব-৭ এর সহকারী পরিচালক মো. মাহমুদুল হাসান মামুন বলেন, গত

৭ জুন কোলাগাঁও এলাকা দিয়ে নববধূকে নিয়ে শ্বশুর বাড়ি যাচ্ছিলেন স্বামী। এর মাত্র তিন দিন আগে

 

ওই দম্পতির বিয়ে হয়েছিল। শ্বশুর বাড়ি যাওয়ার সময় রাত সাড়ে ৮টার সময় পথিমধ্যে হান্নান,

মন্টুন, জুয়েল ও মিন্টু এই দম্পতির পথরোধ করে। এই সময় ব’খাটেরা জো’রপূর্বক তাদের

আধাকিলোমিটার দূরে একটি পুকুরপাড়ে নিয়ে যায়। সেখানে স্বামীকে গাছের সঙ্গে বেঁ’ধে স্ত্রী’কে

 

পালাক্রমে ধ’র্ষণ করে। শুরুতে এই দম্পতি লোকলজ্জার ভ’য়ে বি’ষয়টি গো’পন করতে চেয়েছিল।

কিন্তু পরবর্তীতে ঘটনাটি লোকমুখে ফাঁ’স হয়ে যায়। এরপর ১৫ জুন পটিয়া থা’নায় চারজনের

বি’রুদ্ধে একটি ধ’র্ষণ মা’মলা দা’য়ের করা হয়। এই মা’মলার ছায়া ত’দন্তকালে র‌্যা’ব-৭ জানতে পারে,

 

গণধ’র্ষণ মা’মলার আ’সামি জুয়েল চট্টগ্রাম মহানগরীর পতেঙ্গা থা’নার কাটগড় এলাকায় অবস্থান করছে।

সেখানে অ’ভিযান চা’লিয়ে জুয়েলকে গ্রে’প্তার করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্যের

ভিত্তিতে বাকলিয়া থা’নার রাজাখালী এলাকায় অ’ভিযান চা’লিয়ে মিন্টুকে গ্রে’প্তার করা হয়।

 

প্রাথমিক জি’জ্ঞাসাবাদে তারা দুজনই গণধ’র্ষণে জ’ড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে।

প্রাথমিক জি’জ্ঞাসাবাদে তারা দুজনই গণধ’র্ষণে জ’ড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে।

মা’মলার অন্য আ’সামিদের গ্রে’প্তারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 NewsTheme
Design BY jobbazarbd.com