৫১৬১ বাংলাদেশি পণ্যে শু’ল্কমুক্ত সুবিধা দিল চীন

চীনের বাজারে নতুন করে বাংলাদেশের ৫ হাজার ১৬১টি পণ্যেকে শুল্কমুক্ত প্রবেশের

অনুমতি দিয়েছে দেশটি। বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম চীনের

স্টেট কাউন্সিলর ট্যারিফ কমিশনের বরাত দিয়ে নতুন করে চীনের বাজারে বাংলাদেশের

 

পণ্যের শুল্কমুক্ত সুবিধার খবর প্রকাশিত হয়। চীনের সঙ্গে বাংলাদেশের ব্যবসায়ীক সম্পর্ক

দীর্ঘ দিনের। বিশেষ করে এ অঞ্চলে চীনের পণ্য আমদানির বড় ক্রেতা বাংলাদেশ।

তবে বাংলাদেশ থেকে চীনে পণ্য রফতানির গতি খুব একটা বাড়ছিলো না।

 

এবার চীনের বাজারে বাংলাদেশের পণ্য রফতানির পথ আরো উন্মুক্ত হলো। সরকারের

অর্থনৈতিক কূটনীতির অংশ হিসেবে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে চীনের বাজারে

বাংলাদেশি পণ্যের শুল্কমুক্ত বাজার সুবিধা চেয়ে চীন সরকারকে চিঠি দেয় বাংলাদেশ। এ

 

 

অনুরোধের প্রেক্ষিতে চীনের স্টেট কাউন্সিলের ট্যারিফ কমিশন ১৬ জুন এ নোটিশ জারি করে।

এ শুল্কমুক্ত সুবিধা পহেলা জুলাই থেকে কার্যকর হবে। এর মাধ্যমে দেশটিতে

বাংলাদেশের ৮ হাজার ২৫৬টি পণ্য শুল্কমুক্ত প্রবেশাধিকারের অনুমোদন দেয়া হয়।

 

এতে দেশটিতে ৩টি বাদে বাকি সব পণ্যই শুল্কমুক্ত প্রবেশের অনুমতি পেলো যা

দেশটিতে বাংলাদেশ থেকে মোট রফতানি হওয়া পণ্যের ৯৭ শতাংশ

২০১৮-১৯ অর্থবছরে বাংলাদেশ চীনে ৮৩ কোটি ডলারের পণ্য রফতানি করে। বিশেষ

 

করে কাচা চামড়া, চামড়াজাত পণ্য, পাট ও পাটজাত পণ্য, তৈরি পোশাকসহ কাঠের

করে কাচা চামড়া, চামড়াজাত পণ্য, পাট ও পাটজাত পণ্য, তৈরি পোশাকসহ কাঠের

আসবাবপত্র উল্লেখযোগ্য। বাংলাদেশে উৎপাদিত প্রক্রিয়াজাত চামড়ার ৬০ শতাংশের

বেশি রফতানি হয় চীনে।

Check Also

খালেদা জিয়ার কার্যালয়ের ইমাম মা;রা গেছেন

  বিএনপি চেয়ারপারসনের অফিসের ইমাম হাফেজ মাওলানা জয়নাল আবেদিন আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *