বাংলাদেশের পরিস্থিতি দেখে হতাশ, বলছেন সচেতনতা খুবই কম

বাংলাদেশের পরিস্থিতি দেখে হতাশ, বলছেন সচেতনতা খুবই কম

করোনা পরিস্থিতিতে সহযোগিতার জন্য গত ৮ জুন বাংলাদেশের ঢাকায় আসে চীনের একটি

প্রতিনিধি দল। সফররত চীনের এই বিশেষজ্ঞ দল বাংলাদেশে করোনা ভাই’রাস সংক্র’মণের সার্বিক

পরিস্থিতি দেখে হ’তা’শা প্রকাশ করেছেন। তারা বলেছেন, করোনার মতো ছোঁয়াচে ভাই’রাসের

 

বিষয়ে জনগণের মধ্যে সচেতনতা খুবই কম। খুবই কম নমুনা পরীক্ষাও। আজ ২১ জুন, রবিবার

ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেট অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ডিক্যাব) সঙ্গে এক ভার্চুয়াল আলোচনায়

চীনের বিশেষজ্ঞরা এ কথা বলেন। আগামীকাল সোমবার সফর শেষ করে দেশে ফিরে যাবে বিশেষজ্ঞ দলটি।

 

বাংলাদেশ সফরকালে চীনের প্রতিনিধি দলটি করোনা ভাই’রাসে আ’ক্রান্ত রোগী, কোয়া’রেন্টিন সেন্টার

ও পরীক্ষা কেন্দ্রগুলো পরিদর্শন করে। এ সময় তারা দেশের করোনা ভাই’রাস মহা’মারি নিয়ে আলোচনা,

করোনা নিয়ন্ত্রণ ও চিকিৎসার জন্য নির্দেশনা এবং প্রযুক্তিগত পরামর্শও দিয়েছেন।

 

 

সৌদি থেকে ৩৮৬ বাংলাদেশি ফিরছে আজ
করোনা ভাই’রাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে সৌদি আরবে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের মধ্যে ৩৮৬ জন

যাত্রী বিমান বাংলাদেশের বিশেষ ফ্লাইটে আজ (২১ জুন) দেশে ফিরছে। স্থানীয় সময় সকাল ১১টা ৪০

মিনিটে রিয়াদের কিং খালিদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বিমানের বোয়িং ৭৭৭ যাত্রীদের নিয়ে

 

ঢাকার উদ্দেশে যাত্রা করে। ভাই’রাসের সংক্র’মণ রোধে গত মার্চ থেকে সৌদি আরবের সাথে

বিভিন্ন দেশের আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ থাকায় বাংলাদেশিরা দেশে ফিরতে পারছে না।

এ অবস্থায় বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় সৌদি আরবের রিয়াদ

 

ও জেদ্দা থেকে দুটি বিশেষ ফ্লাইটের ব্যবস্থা করা হয়েছে। জেদ্দা থেকে বিমানের আরেকটি বিশেষ

ফ্লাইট আগামী ১ জুলাই ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাবে। এর আগে গত ১১ মার্চ সৌদি আরবে বসবাসরত

বাংলাদেশিদের যারা দেশে ফিরে যেতে ইচ্ছুক তাদের দেশে ফেরার উদ্যোগ গ্রহণ করে দূতাবাস।

 

দূতাবাসের ওয়েবসাইটে দেশে ফিরতে ইচ্ছুক বাংলাদেশিরা আবেদন করলে তাদের মধ্য থেকে অগ্রাধিকার

ভিত্তিতে যাত্রীদের তালিকা চূড়ান্ত করা হয়। তালিকায় গুরুতর অসুস্থ, ভিজিট ভিসায় এসে আটকে পড়া

ও যারা ফাইনাল এক্সিট নিয়ে চূড়ান্তভাবে দেশে যাবার অপেক্ষায় ছিলেন তাদের অগ্রাধিকার দেয়া হয়।

 

এ পর্যন্ত প্রায় ৩৫০০ বাংলাদেশি প্রবাসী দেশে ফিরে যাওয়ার জন্য আবেদন করেছেন। রাষ্ট্রদূত গোলাম

মসীহ বলেন, ‘সৌদি আরবে প্রায় ২১ লক্ষ বাংলাদেশি বসবাস করেন। অনেকেই জরুরী পারিবারিক

প্রয়োজনে দেশে ফিরতে চান। অনেক অসুস্থ প্রবাসী রয়েছেন। অনেকে ভিজিট ভিসায় এসে দেশে

 

ফিরে যেতে পারছে না। আমরা সবার কথা ভেবে এই উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। করোনা ভাই’রাসের প্রাদুর্ভাবের

এই সময়ে আমরা অভি’বাসী বাংলাদেশিদের সকল প্রকার সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করতে কাজ করে যাচ্ছি।

এই সময়ে আমরা অভি’বাসী বাংলাদেশিদের সকল প্রকার সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করতে কাজ করে যাচ্ছি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 NewsTheme
Design BY jobbazarbd.com