ননদের স্বামীর লালসার শিকার, ল”জ্জায় গৃ’হবধূর গলা’য় ফাঁ”স

ননদের স্বামীর লালসার শিকার, ল”জ্জায় গৃ’হবধূর গলা’য় ফাঁ”স

লালসার শিকার গৃহবধূ- নোয়াখালীর সুবর্ণচরে শ্বশুরবাড়িতে ১ সন্তানের জননী গৃ’হবধূ আ’’ত্ম’হ’ত্যা

করেছে, তবে এটি সুপরিকল্পিত হ’ত্যা বলে দাবি করছেন নি”হতের পরিবার।

নি’হ’ত ঝর্না বেগমকে ননদ পারুল বেগমের স্বামী হুমায়ুন একাধিকবার ধ’র্ষ’ণ করেছে

 

বলেও অ’ভি’যোগ করেন নি’হ’তে’র বাবা আবুল কালাম। আর ধ’র্ষ’ণে’র ঘটনায় অ”পবাদ সইতে

না পেরে আ’ত্ম’হ’ত্যা করছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পরিবারের সদস্যরা।

এদিকে এ ঘটনায় নি’হ’তে’র স্বামী সাহাব উদ্দিনকে আ”টক করেছে চরজব্বার থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার (৩০ জুন) ভোর রাতে সুবর্ণচর উপজেলার ৫ নং চরজুবিলী ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের

পশ্চিম চরজুবিলী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পরে খবর পেয়ে চরজব্বার থানা পুলিশ লা’’শ উ”দ্ধার করে

ময়না’ত’দ’ন্তে’র জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করে। এসময় নি’হ’তে’র ঘর থেকে

 

একটি চিরকুটও উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনায় নি’হ’তে’র পিতা বাদি হয়ে চর জুবলী গ্রামের মাহে

আলমের পুত্র নি’হ’তে’র স্বামী সাহাব উদ্দিন (২৬), ভগ্নিপতি মোঃ হুমায়ুন (৩৫), পিতা- সিরাজুল

ইসলাম, সাং- উত্তর কচ্ছপিয়া, ০৬নং ওয়ার্ড, সাহাব উদ্দিনের পিতা মাহে আলম (৬৫), মাতা হাজরা

 

বেগম (৪৫), ভাই নুর উদ্দিন (৩০), মোঃ জসিম (৩৫) সর্ব সাং- চরজুবলী, ০২ নং ওয়ার্ড, ০৫ নং

চরজুবলী ইউপি আ’সা’মি করে চরজব্বার থানায় একটি মা”মলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

নি’হ’তে’র পিতা আবুল কালাম বলেন, ২ বছর আগে চর জুবলী গ্রামের মাহে আলমের পুত্র সাহাব

 

উদ্দিন (২৬) এর সাথে আমার মেয়ে ঝর্ণা বেগমকে বিয়ে দেই। বর্তমানে তাদের ঘরে আব্দুর রহমান

নামের ৬ মাসের একটি শিশু সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকে আমার মেয়েকে শ্বশুরবাড়ির

লোকজন অকারণে মা’র’ধ’র করতো, সম্প্রতি সাহাব উদ্দিনের বোনের স্বামী হুমায়ুন আমার

 

মে’য়েকে ধ’র্ষ’ণে’র চেষ্টা করে। আমার মেয়ের কাছ থেকে উপরোক্ত ঘটনা জানতে পেরে এই

বিষয়টি এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তি’বর্গা’কে জানালে বিচার-শালিস হয়। ২৮ জুন আমার স্ত্রী

রোশন আক্তার (৪৫) কে আমার মেয়ে ফোন করে জানায় ঝর্ণার ননদের স্বামী হুমায়ুন তার থাকার

 

রুমে প্রবেশ করে জোরপূর্বক ধ’র্ষ’ণ করে। এই খবর পেয়ে আমার স্ত্রী আমার মেয়ের শ্বশুরবাড়ি

গেলে মেয়ের শাশুড়ি হাজেরা বেগম হাতজোড় করে ধরে তারা সমাধন করবে বলে আমার স্ত্রীকে বাড়ি

পাঠিয়ে দেয়। গতকাল ২৯ জুন রাত ৯টায় আমার মেয়ে ও মেয়ের স্বা’মীর সাথে আমি ও আমার স্ত্রী

ফোনে কথা বলেছি। আজ ৩০ জুন মঙ্গলবার সকাল ৯টায় স্থানীয় এলাকার মেম্বার আমায় ফোন

 

করে বলে আমার মেয়ে ফাঁ”সি দিয়েছে। এই খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে আসি। আমার বিশ্বাস আমার

মেয়েকে আসামিরা পূর্বপরিকল্পিতভাবে হ’’ত্যা করেছে”। এলাকাবাসী বলেন, আমরা ২/৩ দিন ধরে

শুনে আসছি ৩ দিন আগে নি’হ’তে’র স্বামী কর্মস্থল চট্রগ্রামে থাকার সুবাধে নি’হ’তে’র ননদের স্বামী

 

হুমায়ুন চট্রগ্রাম থেকে শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে এসে ঝর্ণাকে একা পেয়ে গভীর রাতে ঝর্ণাকে ধ’র্ষ’ণ করে।

এ বিষয়ে ২৯ জুন সোমবার বিকেলে পারিবারিকভাবে বৈঠকও হয়। এ ঘটনার সূত্র ধরে আ’ত্ম’হ’ত্যা’র

ঘটনা ঘটতে পারে। চরজব্বার থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি) সাহেদ উদ্দিন বলেন, এ ঘটনায়

 

এখনো কেউ ‘মা”মলা করেনি, লা’শ উ”দ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে

প্রেরণ করা হয়েছে, ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে বিস্তারিত জানা যাবে। নোয়াখালী জেনারেল

হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে, ময়না তদন্তের রি”পোর্ট হাতে পেলে বিস্তারিত জানা যাবে।

 

 

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 NewsTheme
Design BY jobbazarbd.com