পকেট ভারী করতে সাধারণ মানুষ থেকে আয়কর বাড়িয়ে নিচ্ছে সৌদি সরকার

পকেট ভারী করতে সাধারণ মানুষ থেকে আয়কর বাড়িয়ে নিচ্ছে সৌদি সরকার

অর্থ তহবিল বাড়ানোর লক্ষ্যে আয়কর ও বেসরকারীকরণ বৃদ্ধির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে সৌদি আরব।

একই সঙ্গে বেশকিছু বিনিয়োগের তহবিল স্থানান্তর করেছে সরকার। অবশ্য অনির্দিষ্ট সূত্রের বরাতে

রাষ্ট্রনিয়ন্ত্রিত বার্তা সংস্থা সৌদি প্রেস এজেন্সি (এসপিএ) বলছে, আয়কর বৃদ্ধির বিষয়টি মন্ত্রিসভায়

 

বা সরকারের কোনো কমিটি বা পর্ষদে আলোচিত হয়নি। খবর ব্লুমবার্গ।

তেলের দামে পতনের জেরে রাজকোষ সংকুচিত হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে কিছু সম্পদ বিক্রির

পরিকল্পনা করছে সৌদি আরব। একই সঙ্গে আয়কর চালুর বিষয়টি উড়িয়ে দিচ্ছে না দেশটি।

 

ব্লুমবার্গ কর্তৃক আয়োজিত একটি ভার্চুয়াল ফোরামে অর্থমন্ত্রী মোহাম্মদ আল জাদান বলেন,

আগামী চার থেকে পাঁচ বছরের মধ্যে শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও পানিসম্পদ খাতে বেসরকারীকরণের মাধ্যমে

৫ হাজার কোটি রিয়াল বা ১ হাজার ৩৩০ কোটি ডলার সংগ্রহের পরিকল্পনা রয়েছে সৌদি আরবের।

 

অর্থ সংগ্রহের সব ধরনের উপায় খুঁজে দেখছে সরকার। তবে শিগগিরই আয়কর আরোপ না হলেও

এটা ভবিষ্যতে কার্যকরের বিষয়টি উড়িয়ে দিচ্ছে না সরকার।অনির্ধারিত সূত্রের বরাতে এসপিএ বলছে,

আয়করের বিষয়টি মন্ত্রিসভা কিংবা অন্য কোনো মহলে আলোচিত হয়নি।

 

নভেল করোনাভাইরাস মহামারী ও অপরিশোধিত তেলের দামে পতনের দুই ধাক্কায় অর্থনীতি চাঙ্গায়

মরিয়া হয়ে পড়েছে সৌদি আরব।আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) বরাতে জানা গেছে,

চলতি বছরে দেশটির অর্থনীতি ৬ দশমিক ৮ শতাংশ সংকুচিত হতে পারে। গত ৩০ বছরের মধ্যে

সর্বোচ্চ সংকোচনের মধ্য দিয়ে যাবে মধ্যপ্রাচ্যের শীর্ষ অর্থনীতিটি।

 

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 NewsTheme
Design BY jobbazarbd.com