দুঃশাসনের যাঁতাকলে আমরা সবাই পিষ্ট: ভিপি নুর

 

বর্তমান দুঃশাসনের যাঁতাকলে আমরা সবাই পিষ্ট বলে উল্লেখ করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের

(ডাকসু) ভিপি নুরুল হক নুর। শনিবার (২৯ আগস্ট) রাতে গণসংহতি আন্দোলনের ১৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে

 

আয়োজিত ‘সংকটে দেশ ও জনজীবন: মুক্তি কোন পথে?’ শীর্ষক অনলাইন আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

নুরুল হক নূর বলেন, বর্তমানে এই দুঃশাসনের যাঁতাকলে আমরা সবাই পিষ্ট। শুধুমাত্র রাজনৈতিক দল কিংবা

 

ভিন্নমতের মানুষ নয়, আজকে সাংবাদিকরাও রেহাই পাচ্ছেন না। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের খড়গ সবার ওপর

নেমে আসছে। আমরা দেখলাম সাংবাদিক কাজল ভাইকে কিভাবে সীমান্তের ওপারে নিয়ে গিয়ে একটা নাটক

সাজানো হলো। এর পেছনে কলকাঠি নাড়ছেন সরকারদলীয় একজন সংসদ সদস্য। এরকম অসংখ্য ঘটনা ঘটেছে

 

আমি শুধুমাত্র একজনের উদাহরণ দিলাম। তিনি আরও বলেন, সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যাকাণ্ডের আট

বছর অতিবাহিত হলেও আজ পর্যন্ত ওই মামলার একটা তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়নি। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক,

জাতি গড়ার কারিগরেরাও ফেসবুকের দুই-চার লাইন লেখার কারণে কারাগারে যেতে হচ্ছে।

 

আজকে একজন মুদি দোকানদার করোনাকালীন সরকারদলীয় নেতাকর্মী লুটপাটের মহোৎসবের মেতে ওঠার

প্রমাণ তুলে ধরার জন্য তাকে জেলে যেতে হয়। এই দুঃশাসনের মধ্যে আমরা কেউই নিরাপদ নই।

ডাকসু ভিপি বর্তমান সরকারের সমালোচনা করে বলেন, আজকে ছাত্র সমাজের একজন নেতা হিসেবে প্রতিনিয়ত

 

আমাদেরকে অনিশ্চিত শঙ্কায় জীবন কাটাতে হয়। আমরা যেভাবে এই দুঃশাসনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করছি, কখন

যেন আমাদেরকে গুম করা হয়। আমাদের মতো অনেকেই এমন অনিশ্চিত জীবন যাত্রার মধ্যে দিয়ে দিন কাটাতে

হয়। এখন আমাদের প্রশ্ন স্বাধীনতার ৫০ বছর হতে চললো, এখনো কি আমরা দুঃশাসনের যাঁতাকলে পিষ্ট হতে

 

থাকবো? এই দেশটা কি এভাবেই চলবে? জাতীয় নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, তরুণরা অন্যায়ের

বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে পিছপা হন না। জাতীয় নেতারা যদি এক কাতারে এসে জনগণকে দুঃশাসনের বিরুদ্ধে

ঐক্যের ডাক দিতে পারেন তাহলে জনগণ ঐক্যবদ্ধ হবে। আমরা এর জন্য জাতীয় নেতাদের দিকে তাকিয়ে

 

রয়েছি। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি।

সভা পরিচালনা করেন গণসংহতি আন্দোলনের রাজনৈতিক পরিষদের সদস্য তাসলিমা আখতার।

আলোচনায় আরও অংশ নেন, বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ) সাধারণ সম্পাদক কমরেড

 

খালেকুজ্জামান, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির

সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক। বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক।

 

 

Check Also

মেয়ের বয়সী, আমি কীভাবে তার প্রেমিকা হই?

  রাজপুত সুশান্তের প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তী ও নির্মাতা মহেশ ভাটের রহস্যজনক সম্পর্ক নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *