Breaking News

মা’র্চে বাংলাদেশকে বড় ধ’রনের চ’ম’ক দেবে পাকিস্তান…..

বাংলাদেশের স’ঙ্গে স’স্পর্ক স্বা’ভাবিক ক’রতে ম’রি’য়া হয়ে উঠেছে পাকিস্তান। গত এক বছরে পাকিস্তান একের পর এক বিভিন্ন পদক্ষে’প নিচ্ছে যাতে বাংলাদেশ স’ন্তু’ষ্ট হয় এবং বাংলাদেশের সাথে পাকিস্তানের যে তি’ক্ত কূটনৈতিক স’স্পর্ক সেটা স্বা’ভাবিক হয়।

 

একাধিক কূটনৈতিক সূত্র বলছে যে, চীনের প’রামর্শ এবং চা’পেই বাংলাদেশের স’ঙ্গে স’স্পর্ক স্বা’ভাবিকীকরণের প্র’ক্রিয়া শুরু করেছে পাকিস্তান। আর এই প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে কূটনৈতিক পাড়ায় গু’ঞ্জন, মা’র্চে বড় ধ’রনের চ’ম’ক আ’সছে।

 

আগামী মা’র্চ মাস বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবস। ১৯৭১ সালের ২৫শে মা’র্চ কালোরাত্রিতে পাকিস্তানি হা’না’দা’র বা’হিনী নি’র’স্ত্র বাঙালির ওপর নি’র্ম’ম অ’ত্যা’চার এবং ব’র্ব’রো’চি’ত হা’ম’লা চালায়। দ্বিতীয় বিশ্বযু’’দ্ধের পর এটি পৃথিবীর ইতিহাসে স’বচেয়ে বড় ধ’রণের ব’র্ব’র’তা এবং না’র’কীয় কা’ণ্ড।

 

অ’পা’রে’শন সা’র্চলাইট নামে এই সামরিক অ’ভি’যানে রাতের অন্ধকারে বাংলাদেশের নি’র’স্ত্র মানুষের উপর ব’র্ব’রো’চি’ত হা’ম’লা করা হয় এবং অকাতরে গ’ণহ’’ত্যা করা হয় নি’রী’হ জনগণকে, ধ’’’র্ষি’ত হন লাখো মা-বোন, জ্বা’’লি’য়ে দেয়া হয় শত স’হ’স্র ঘরবাড়ি।

 

আজও পৃথিবীর ইতিহাসে এই একাত্তরের গ’ণহ’’ত্যা একটি বড় ব’র্ব’রো’চি’ত অধ্যায় হিসেবে পরিচিত।
১৯৭১ সালে একটি যু’’দ্ধ চা’পি’য়ে দিয়ে বাংলাদেশে গ’ণহ’’ত্যা চালিয়ে পাকিস্তানিরা বাংলাদেশের উপর আ’ধিপ’ত্য বজায় রাখতে চেয়েছিল। কিন্তু বীর বাঙালি পাকিস্তানি হা’না’দা’র বা’হিনীর এই আ’ক্র’ম’ণের কাছে নতি স্বী’কার করেনি।

 

বরং জাতির পিতার আহবানে সা’ড়া দিয়ে মু’ক্তিযু’’দ্ধে ঝাঁ’পি’য়ে পড়ে এবং দীর্ঘ নয় মাসের সং’গ্রামের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ স্বাধীনতা অর্জন করে। ১৯৭১ সালে পাকিস্তানী হা’না’দা’র বা’হিনীর ব’র্ব’র’তা সারাবিশ্বে স’মালোচিত হলেও দীর্ঘ ৫০ বছর অ’তিক্রা’ন্ত হতে চলেছে কিন্তু এখন পর্যন্ত পাকিস্তান এই গ’ণহ’’ত্যার জন্য ক্ষ’মা চায়নি।

 

কূটনৈতিক সূত্রগুলো বলছে, একাত্তরের ব’র্ব’রো’চি’ত গণহ’’ত্যার ৫০ বছর উপলক্ষে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইম’রান খান একটি ক্ষ’মা প্র’কাশের বাণী দিতে পারেন। এই বাণী প্র’স্তুতির প্রক্রিয়া চলছে, যেখানে অবশেষে পাকিস্তান বাংলাদেশের কাছে দুঃখ প্র’কাশ করবে।

 

তবে বাংলাদেশের কূটনৈতিক মহল বলছে শুধুমাত্র দুঃখ প্র’কাশই য’থেষ্ট নয়। পাকিস্তান যে ব’র্ব’র’তার ১৯৭১ সালে করেছে, তার জন্য তাদেরকে ক্ষ’মাও চাইতে হবে। ক্ষ’মা পাকিস্তান চাইবে কিনা সেটা এখন পর্যন্ত স্প’ষ্ট নয়। তবে

 

কূটনৈতিক মহল বলছে যে, আ’সছে ২৫শে মা’র্চ পাকিস্তানের পক্ষ থেকে দুঃখ প্র’কাশের একটি নাটকীয় ঘো’ষণা আসতে পারে। উল্লেখ্য যে, গত একবছরে পাকিস্তান বাংলাদেশের সাথে ঘ’নি’ষ্ঠ হওয়ার জন্য প্রানন্ত চেষ্টা করছে।

এই প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবেই পাকিস্তান বাংলাদেশে ভিসা সহজীকরণ করেছে, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইম’রান খান দুইবার বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর স’ঙ্গে টেলিআলাপ ক’রেছেন, পাকিস্তানের হাইকমি’শনার প্রধানমন্ত্রীর স’ঙ্গে গণভবনে সাক্ষাৎ ক’রেছেন। এই সমস্ত ধারাবাহিকতায় এই আবহ তৈরি করা হচ্ছে মূলত দুঃখ প্র’কাশের আয়োজন হিসেবে।

 

একাত্তরের মু’ক্তিযু’’দ্ধ এবং মু’ক্তিযু’’দ্ধের চেতনায় বিশ্বা’সী সমস্ত মানুষই মনে করেন পাকিস্তান যদি শুধু দুঃখ প্র’কাশ করে তাহলেই হবে না, পাকিস্তানকে ক্ষ’মা চাইতে হবে এবং পাকিস্তানের কাছে বাংলাদেশের যে ন্যায্য

 

পাওনা রয়েছে সেই পাওনা ফেরত দেওয়ার ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক অ’ঙ্গীকার ক’রতে হবে। তবে চীনের চা’পেই হোক আর যে কারণেই হোক, ইম’রান খান যে বাংলাদেশের ব্যাপারে অনেক ন’মনীয় এবং বাংলাদেশের সাথে স’স্পর্ক ক’রতে আগ্রহী সেটা গত এক বছরেই প্রমাণিত হয়েছে।

 

 

Check Also

তালা ঝুলিয়ে দলীয় কার্যালয় ছাড়লেন কাদের মির্জা

এবার নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজে’লা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয় থেকে নিজে’র সব আসবাবপত্র গুটিয়ে নিয়ে ব্য’ক্তিগত …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *