সরকারের উপর চা’প বাড়ছে

টানা ১২ বছর ক্ষ’মতায় আছে আওয়ামী লীগ সরকার। এই ১২ বছরে আওয়ামী লীগ কোন ধ’রনের বড় চা’পের মু’খোমুখি হয়নি। ২০১৪ এবং ২০১৮ নির্বাচনের মতো প’রিস্থিতি আওয়ামী লীগ হেসে খেলে পাড় করেছে। সেই

 

আওয়ামী লীগ সরকার এখন বিভিন্ন ধ’রনের চা’প এবং অস্বস্তি অ’নুভব করছেন বলেই সরকারের নীতি নির্ধারকরা জা’নাচ্ছেন। বিশেষ করে বিভিন্ন ক্ষেত্রে সমন্বয়হীনতা বাইরে ষ’ড়য’ন্ত্র’ ইত্যাদি সরকারকে কিছুটা হলেও অস্বস্তিতে ফে’লে ছে ‌। যে সমস্ত বিষয় নিয়ে সরকার এখন চা’পের মুখে আছে তার মধ্যে বেশ কিছু আছে ।

 

প্রথমত: প্রশা’সন বনাম জনপ্রতিনিধিঃ গত ছয় মাস ধ’রে প্রশা’সনের সাথে জনপ্রতিনিধিদের কোথাও না কোথাও বি’রো’ধ ঘ’টছে । সাম্প্রতিক সময়ে বিরো’ধীতা স’হিং’সতায় রূপ নিয়েছে। গত শনিবার কিশোরগঞ্জে’র কটিয়াদীতে যে ঘ’টনাটি ঘ’টেছে এটা সরকারকে উ’দ্বি’গ্ন করেছে।

 

এই ঘ’টনার ফলস্রুতিতে প্রশা’সনের মধ্যে এক ধ’রনের জনপ্রতিনিধি বিরো’ধী অব’স্থান দেখা দিচ্ছে।আবার জনপ্রতিনিধিরা মনে করছে যে আম’রা এখন জনপ্রতিনিধি তাই ক্ষ’মতা বেশি ব্যবহার ক’রতে চাইছে । সরকারের দুটি গু’রুত্ব পূর্ণ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে যে মু’খোমুখি অব’স্থানটা সরকারকে এক ধ’রনের অসস্তি এবং চা’পের মধ্যে ফে’লেছে ।

 

দ্বিতীয়ত: আওয়ামী লীগের মধ্যে কোন্দল অস্থিরতা এবং কাদা ছোড়াছুড়ি ‌ । পৌরসভা নির্বাচনের শুরু থেকে দেখা যাচ্ছে যে আওয়ামী লীগের মধ্যে এক ধ’রনের কোন্দল অস্থিরতা প্র’কাশ্য রূপ পেয়েছে । বিশেষ করে নোয়াখালীর বসুরহাটের পৌরসভা নির্বাচনের আগে থেকেই আওয়ামী লীগের পৌরসভা প্রার্থী মির্জা কাদের একের পর এক দলীয় গু’রুত্ব পূর্ণ নেতাদের বি’রুদ্ধে মন্তব্য ক’রেছেন এবং আ’ক্রমণাত্মক মনোভাব প্র’কাশ ক’রেছেন ।

 

 

আওয়ামী লীগ বনাম আওয়ামী লীগের এই কাদা ছোড়াছুড়ি দলকে একটা বি’ব্রতক’র অবস্থার মধ্যে ফে’লে ছে ‌। পাশাপাশি আওয়ামী লীগের মধ্যে ব্যা’পক পরিমাণ বিদ্রোহী প্রার্থী এবং বিদ্রোহী প্রার্থীদের বি’রুদ্ধে ব্যব’স্থা গ্রহণের

 

ক্ষেত্রে আওয়ামী লীগের অক্ষ’মতা এবং দলের চেইন অফ কমান্ড নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে । অনেক ক্ষেত্রেই মনে করা হচ্ছে আওয়ামী লীগের চেইন অব কমান্ড ভে’ঙে পড়েছে এবং এর নেতিবাচক প্র’ভাব সরকারের উপর পড়ছে।

 

তৃতীয়ত: আল জাজিরার রিপোর্ট । গতানুগতিক তথাকথিত আল জাজিরার রিপোর্ট সরকারকে নতুন অস্বস্তিকর প’রিস্থিতির মধ্যে ফে’লে ছে ‌। যদিও এই রিপোর্টটি বানোয়াট এবং অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার রীতি নীতি বি’রু’দ্ধ

 

এবং এক ধ’রনের গু’জ’ব ছড়ানোর অপচে’ষ্টা। কিন্তু এই রিপোর্টটিতে বাংলাদেশের রাজনীতিতে কেউ কেউ বিভক্তি সৃষ্টির চেষ্টা করছে এবং এই রিপোর্ট কে ঘিরে নানা রকম কথা’বা র্তা তৈরি হচ্ছে। চতুর্থত: হ’ঠাৎ করে বি’রো’ধী দল চাঙ্গা । পৌরসভা নির্বাচনের পর বি’রো’ধী দলগুলোকে নতুন করে চা’ঙ্গা হতে দেখা যাচ্ছে । বিশেষ করে বিএনপির

 

৬ টি বিভাগীয় শহরে যেখানে সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন হয়েছে এবং বিএনপি প’রাজিত হয়েছে ‌। সেখানে সমাবেশ ঢাকার মধ্য দিয়ে রাজনীতিতে একটি নতুন উ’স্কা’নি তৈরি হচ্ছে বলে মনে করা হচ্ছে । আওয়ামী লীগের ওবায়দুল কাদেরের সাথে আলাপ করলে তিনি বলেন এটি রাজনীতিতে নতুন ষ’ড়য’ন্ত্রের অংশ । বিএনপি নতুন করে

 

না’শ’কতা তৈরি ক’রতে চায় ‌। তিনি এটাও বলেছেন যে এই ধ’রনের অপচেষ্টা কখনো সফল হবে না। পঞ্চমত: কূটনীতিকদের তৎপরতা ও সুশীল সমাজ । হ’ঠাৎ করেই পাদপ্রদীপে এসেছেন কল্যান পার্টির নেতা সৈয়দ ইব্রাহীম । তিনি প্রতিনিয়ত কূটনীতিকপাড়ায় যোগাযোগ করছেন । সর্বশেষ গত বৃহস্পতিবার তিনি একটি নৈশ ভোজে’র

 

 

আয়োজন করেছিলেন। তবে হোটেল ক’র্তৃপক্ষের অপারগতার কারণে সেই নৈ’শভো’জ হয়ে উঠতে পারেনি ‌। জা’না গেছে এই সপ্তাহে তিনি আবার কূটনীতিকদের নিয়ে কোনভাবে বসবেন । সুশীল সমাজ, কূটনীতিক, প্রাক্তন সামরিক এবং বেসামরিক আমলাদের নিয়ে তার যে উদ্যো’গ সেটা সরকার অত্যন্ত সত’র্ক দৃষ্টিতে দেখছে। এই

 

বিষয়ে আওয়ামী লীগের একজন নেতা বলেছেন সরকারকে বিব্রতকর প’রিস্থিতি এবং চা’পে ফেলার জন্য এই মেরুকরণের চেষ্টা চলছে ‌। তবে সরকারের বি’রুদ্ধে’ যে ষ’ড়’যন্ত্র বাড়ছে এটা সরকার অ’নুভব করছে।

 

Check Also

ভারতের বিরো’ধিতায় সিদ্ধা’ন্ত বদলালো আইসিসি

বেশ কিছুদিন আগেই ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) নি’শ্চিত করেছিল যে ২০২৩-৩১ সাল পর্যন্ত টুর্নামেন্টগুলো বিডিং …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *