এদেশে ন’ষ্টরাই টিকে থাকে: সামিয়া রহমান

একটি চ্যানেলের কর্ণধার, পুরোপুরি কর্ণধার হবার যোগ্যতা তার হয়নি। সম্ভবত সিএনই লেভেলেই আছেন। তিনি কাল আবার বাবার স্ট্যাটাস দেখে লিখলেন, এতোদিন দেখেছি চো’রের মায়ের বড় গলা, এখন দেখছি চো’রের

 

বাপেরও বড় গলা। বয়োবৃ’দ্ধদের স’স্পর্কে যাদের বিন্দুমাত্র সম্মানবোধ নেই, অবশ্য সম্মানবোধের শিক্ষাটা আসে পরিবার থেকে। তার হয়তো সেই সুযোগই ছিল না। কিন্তু আমা’র তো মনে হয়, বাক্যটা এমন হওয়া উচিত ছিল এতোদিন শুনেছি চো’রের মায়ের বড় গলা, কিন্তু চো’রের স্বামীর এতো বড় গলা হলো কি করে?

 

তার স্ত্রী বাংলাদেশের সকল চ্যানেলে চাকরির জন্য সুপারিশ ধ’র্ণা ধ’রে ধ’রে যখন চরম ব্য’র্থ, ফাউ ফাউ কাজে দিন গুজরান করে, তখন আমা’র কাছে চাকরির সুপারিশ করছিল। তখন আমিই তাকে গাজী টিভির মুস্তাফিজুর রহমানের কাছে নিয়ে গিয়েছিলাম। জো’র করে তাকে চাকরি দিয়েছিলাম।

 

তার বি’রুদ্ধেই আমা’র বিভাগের তিন ব্যাচের শিক্ষার্থীরা চরম আন্দোলন করেছিল- কি? সে নাকি শিক্ষক হিসেবে পড়াতেই পারে না। শিক্ষার্থীদের কোনো প্রশ্নের উত্তর দেয়া তো দূ’রের কথা, পড়াতেই নাকি পারেন না। অধ্যাপক

 

গোলাম রহমান তখন চেয়ারম্যান ছিলেন। সমাধানের জন্য সকল শিক্ষার্থীদের লেকচার থিয়েটারের এক সাইডে আর আর এক সাইডে সকল শিক্ষকদের বসানো হল। শিক্ষার্থীরা ২ ঘন্টা যাবত ঐ নারী শিক্ষকের বি’রুদ্ধে যে গাল মন্দ করলেন ( যিনি বর্তমানে আমা’র পূর্বের গণমাধ্যম ক’র্মরত।) লজ্জায় সকল শিক্ষকের মাথা কাটা গিয়েছিল।

 

ঐ মহিলা শিক্ষককে দুই ব্যাচ পড়ানোর ক্ষ’মতা থেকে সাসপেন্ড করে রাখা হয়েছিল। বিশেষত তার ইংরেজি ‍ও যেকোনো বিষয় স’স্পর্কে দু’র্বলতার জন্য। অকৃতজ্ঞ তো দুনিয়ার অনেক মানুষই হয় কিন্তু এখন দেখছি কৃতঘ্নদের। দেখলাম বলা ভুল, তিনি তার সাদা মুখোশের আড়ালে সেটি অনেক আগেই দেখিয়েছেন।

 

বিভাগের অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌসকে বহুবার বলেছেন সামিয়া রহমান মরে না কেন? —– আমি মরি না বাঁচি, তোমাদের মতো কীট পতঙ্গের কারণে মরবো না। যদি মরি অন্যায়ের বি’রুদ্ধে মরবো। যে অন্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান প্রশা’সন সকল প্রমান আমা’র পক্ষে থাকার পরও গায়ের জো’রে সিদ্ধা’ন্ত চা’পাচ্ছেন।

 

এতোদিন এতো মিডিয়াকে ডেকে বক্তব্য দিচ্ছেন, কিন্তু যখনই ডক্যুমেন্ট ধ’রে প্রশ্ন করা হচ্ছে সব্বাই বেমালুম এড়িয়ে যাচ্ছেন বিধা দ্বিধায়। অস্বী’কার করছেন সব কিছু। এদেশেতে আ’সলে সবে]ই সম্ভব হয়। ন’ষ্টরাই টিকে থাকে। তারাই ধ্বং’স করে সব কিছু।

 

 

Check Also

মাওলানা মামুনুল হককে ‘নিজে’র বাড়িতে’ দাওয়াত দিলেন নিক্সন চৌধুরী

ফরিদপুর-৪ আসনের জনপ্রিয় সংসদ সদস্য ও আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মজিবর রহমান চৌধুরী নিক্সন বলেছেন, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *