বেতন পাবেন উবার চালকরা

আর স্বনির্ভর রোজগারকারির তকমা থাকছে না উবার চালকদের। অর্থাৎ তারা এবার থেকে উবার কোম্পানিতে ক’র্মরত হিসেবে গণ্য হবেন এবং তারা সর্বনিম্ন মজুরি পাবেন, এমনকি ছুটির দিনের বাড়তি বেতনও পাবেন। এমনই

 

এক আদেশ দিয়েছেন যুক্তরাজ্যের সর্বো’চ্চ আদালত। বলা হচ্ছে, আদালতের এই রায়ের কারণে বর্তমান অস্থির অর্থনৈতিক প’রিস্থিতিতে অ্যাপভিত্তিক রাইড শেয়ারিং প্রতিষ্ঠানটি মোটা অঙ্কের ভর্তুকি খরচের হাত থেকে র’ক্ষা

 

পাবে। বিবিসির খবরে উল্লেখ করা হয়েছে এই রায়ের পর উবার বলছে, খুব অল্পসংখ্যক চালকই এই রায়ের সুবিধাভুক্ত হতে পারবে এবং এটা উবারের ব্যবসায় বেশ পরিবর্তন আনবে।এই রায় মানার আগে দীর্ঘদিন চলে আসা

 

এই আ’ইনি লড়াইয়ে তিনবার হেরেছে উবার ক’র্তৃপক্ষ এবং প্রতিবারই তারা আপিল করেছে। যুক্তরাজ্যে এই রায় ঘো’ষণার পর দিন শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) যুক্তরাষ্ট্রের পুঁজিবাজারে উবারের শেয়ারের দাম কমেছে। কারণ, এই

 

রায় ঘো’ষণায় লন্ডনে কী ধ’রনের প্র’ভাব প’ড়ে তা যাচাই ক’রতে সময় নিতে চান বিনিয়োগকারীরা। তবে, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে উবার চালকদের জন্য এটা একটা প’রিস্থিতিও বটে। কারণ, তারা আর স্বনির্ভর উবার চালক থাকছেন

 

না। তারা উবারের ক’র্মী হিসেবে গণ্য হবেন। ২০১৬ সালের অক্টোবরে প্রথম এই বিষয় নিয়ে আদালতের শরণাপন্ন হন দুই উবার চালক জেমস ফারার ও ইয়াসিন আ’সলাম। তারা দা’বি করেন, তারা কাজ করেন উবার চালক হিসেবে

 

অথচ উবার বলে তারা উবারের ক’র্মী নয়। আর এ জন্য উবার তাদের সর্বনিম্ন মজুরিও দেয় না আবার ছুটির দিনের বেনিফিটও দেয় না। এই রায় শুনে তারা স্বস্তি ও আনন্দিত হয়েছেন। অ্যাপ ড্রাইভারস অ্যান্ড কুরিয়ারর্স ইউনিয়নের

 

প্রেসিডেন্ট ইয়াসিন আ’সলাম বলেন, এটা আমাদের জন্য অনেক বড় একটা অর্জন। এটা প্রমাণ ক’রতে পেরেছি যে দানব দানব কোম্পানির বি’রুদ্ধে আম’রা সংঘবদ্ধ হতে পারি ও অধিকার নি’শ্চিত ক’রতে পারি। অধিকার

 

আদা’য়ের প্রশ্নে আম’রা হাল ছাড়ব না কখনোই। আম’রা আমাদের আবেগের জায়গায়, অর্থনৈতিক জায়গায় ও সামাজিক ও শা’রীরিকভাবে যেমনই থাকি না কেন- আম’রা আমাদের দা’বির জায়গায় এক ও অভিন্ন।

 

 

Check Also

ভারতের বিরো’ধিতায় সিদ্ধা’ন্ত বদলালো আইসিসি

বেশ কিছুদিন আগেই ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) নি’শ্চিত করেছিল যে ২০২৩-৩১ সাল পর্যন্ত টুর্নামেন্টগুলো বিডিং …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *