Breaking News

স্বা’মী বিদেশ, ছেলের শিক্ষকের সাথে শা’রী’রি’ক সম্প’র্ক, অতঃপর…

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ভুয়া স্বা’মী-স্ত্রীর পরিচয়ে এক প্রবাসীর স্ত্রীর (৩৫) স’ঙ্গে সাড়ে তিন বছর

শা;রী’রি;ক স;ম্প;র্কের অ;ভি;যোগ পাওয়া গেছে তারই এক সময়ের গৃহ শিক্ষকের বি’রুদ্ধে।

 

এ ঘ’টনায় ভুয়া স্বা’মী গোলাম মোস্তফাকে (৩৮) গ্রে;ফ;তার করেছে পু’লিশ। গৃহবধূর মা মা;ম;লায়

উল্লেখ করেন, বরিশালের বাকেরগঞ্জের দাড়িয়াল এলাকার ওই গৃহবধূর ২০০৫ সালে পারিবারিকভাবে

 

বিয়ে হয়। বিয়ের পর স্বা’মী-স্ত্রী কুয়েত চলে যান। তাদের সংসারে একটি ছেলে স’ন্তান রয়েছে। যার

বর্তমানে ব’য়স ১০ বছর। গৃহবধূ তার স্বা’মীকে কুয়েত রেখে ২০০৯ সালে বাংলাদেশে চলে আসেন।

 

এরপর গৃহবধূকে তার স্কুল জীবনের গৃহশিক্ষক মোস্তফা তার আগের স্ত্রী স’ন্তানের কথা গো’পন করে

প্রেমসহ বিয়ের প্রস্তাব দেন। প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় নানা ধরনের ভ;য়;ভী;তিসহ হু;ম;কি দেয়া হয়

 

গৃহবধূকে।একপর্যায়ে তাদের মধ্যে সম্প’র্ক তৈরি হয় এবং গৃহবধূর আগের স্বা’মীকে তা;লা;ক দিতে

বা;ধ্য করে বিয়ের প্রস্তাব দেয়া হয়। গত ২০১২ সালের জুন মাসে মোস্তফার স’ঙ্গে গৃহবধূ কক্সবাজার

 

গিয়ে বিয়ে করেন। এরপর তারা স্বা’মী-স্ত্রীর মত মেলামেশা শুরু করেন। গত ২০১৬ সালের আগস্ট মাসে

ফতুল্লার মাসদাইর ঘোষেরবাগ এলাকার মিনা কাজির বাসায় ভাড়া নেন তারা। কিন্তু ওই বাসায় গৃহবধূকে

 

রেখে মাসে ২-৩ বার আসা-যাওয়া করতেন মোস্তফা। সর্বশেষ ২০১৬ সালে ডিসেম্বর মাসের ৩০ তারিখে

এসে মেলামেশা করে চলে যান মোস্তফা। ওই দিন গৃহবধূ মোস্তফাকে তার বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার কথা

 

বললে নানা ধরনের তালবাহা’না শুরু করেন তিনি। এরপর থেকে গৃহবধূর স’ঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন

মোস্তফা। পরে গৃহবধূ কক্সবাজারে গিয়ে কাজি অফিস খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন তাদের বিয়ে হয়নি।

 

ওই কাবিন ছিল ভুয়া। তার স’ঙ্গে দীর্ঘদিন প্র;তা;র;ণা করেছেন মোস্তফা। গ্রে;ফ;তা;র গোলাম মোস্তফা

বরিশালের বাকেরগঞ্জের দাড়িয়াল এলাকার আশরাফ আলী জমাদ্দারের ছেলে। তিনি ঢাকার লালবাগ

আজিমপুরের ৭৫ নং নয়াপল্টন লাইন এলাকায় বসবাস করেন।

 

 

 

Check Also

একসঙ্গে মা-মেয়ের বিয়ে! বিস্তারিত জানুন

একসঙ্গে মা-মেয়ের বিয়ে! কারণ জানলে আপনিও সমর্থন জানাবেন! বয়স কেবল সংখ্যামাত্র। বিভিন্ন ক্ষেত্রেই এই কথাটি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *